এক প্রেমে এগারো বছর পার
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

এক প্রেমে এগারো বছর পার

মাসুম আওয়াল ৫:২০ অপরাহ্ণ, জুন ০৯, ২০১৭

এক প্রেমে এগারো বছর পার

তখন বিকেল। হাতির ঝিলের পাড় ঘেঁষে হাঁটতে হাঁটতে এফডিসির গেট। এরপর ভেতরে প্রবেশ। না, কোনো নির্দিষ্ট শুটিং সেটে নয়। উদ্দেশ্য এফডিসিতে এক চক্বর ঘুরে আসা। কোন ফ্লোরে কী হচ্ছে এক নজরে দেখে নেওয়া। রোজার মধ্যেও ঈদের অনুষ্ঠান, রোজার অনুষ্ঠানের শুটিং হতে দেখা যায় এখানে। টুকটাক চলে চলচ্চিত্রের শুটিংও।

ভাবতে ভাবতে ভেতরে প্রবেশ। এফডিসিরে মুল ফটক দিয়ে ঢুকে মোড় ঘুরলেই হাতের ডানে পড়ে ৪ নাম্বার ফ্লোর। শুরুতে এখানে উঁকি না দিলেই নয় যেন! তাই প্রবেশ।

ভেতরে দেখা গেল সুন্দর সাজানো একটি সেট। সোফায় বসে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন— ঢাকাই সিনেমার নাম্বার ওয়ান খলনায়ক মিশা সওদাগর। ‘মিড ক্যাফে’ শিরোনামের মাছরাঙা টেলিভিশনের বিশেষ অনুষ্ঠানে শোনাচ্ছিলেন নিজের জীবনের গল্প।

মনিরুজ্জামান প্রযোজিত এই অনুষ্ঠানে মিশার ভালোবাসার গল্প শুনতে পাবেন দর্শক। তিনি বলছিলেন, ‘আমার জীবনে একটি মাত্র প্রেম। সে আমার সহধর্মিণী মিতা। টানা ১১ বছর প্রেম করে বিয়ে। একটি প্রেমেই ১১ বছর পার।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রেমে তেমন বাধা পায়নি। কারণ মায়ের দিক থেকে ওরা আগে থেকেই আমাদের আত্মীয়। ওদের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী। আমরা একসময় থাকতাম পুরান ঢাকায়, আর মিতারা থাকত আরামবাগে। আর এই সুবাদে প্রায়ই তাদের বাসায় যাওয়া হতো। ওরাও আমাদের বাসায় আসত।’

শুটিং চলতেই থাকল। ঘুরতে ঘুরতে দেখা গেল আরো কয়েকটি ফ্লোরে সেট তৈরির কাজ চলছে। ৭ নং ফ্লোরের কর্মচারী রহিম জানালেন, একটি ঈদ অনুষ্ঠানের সেট নির্মাণ করছেন।

এছাড়া বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর ‘বাহাদূরী’ সিনেমার শুটিং হয়। সব মিলিয়ে অল্প পরিসরে হলেও কর্মমুখর ছিল এফডিসি।

এএ/ডব্লিউএস

 

: আরও পড়ুন

আরও