১০ বছর লোহার শিকলে বন্দী তার জীবন!
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৭

১০ বছর লোহার শিকলে বন্দী তার জীবন!

আশরাফুল ইসলাম রনি, তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) ৪:২১ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০

১০ বছর লোহার শিকলে বন্দী তার জীবন!
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ১০ বছর যাবৎ শিকলে বাঁধা সাজেদুলের (২০) জীবন। তাড়াশ পৌর এলাকার সোলাপাড়া মহল্লার আব্দুস সামাদের ছেলে তিনি।

বাবা মা দু'জনই দিন মজুর। প্রতিবন্ধী সাজেদুলই তাদের পরিবারের একমাত্র ধন।
তাই ছেলেটি সুস্থ করার জন্যে তারা ছোট বেলা থেকেই ডাক্তার কবিরাজসহ বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা করিয়েছেন। কিন্তু তাতেও কোন কাজ হয়নি।

তাই বাবা মা ছেলে হারিয়ে যাওয়ার ভয়ে, পানিতে পড়ে ডুবে যাওয়ার ভয়ে অথবা মানুষের ক্ষতি করবে এই ভয়ে বাধ্য হয়ে পায়ে শিকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে মানুষের দুয়ারে কাজ করতে যান। রোদ, বৃষ্টি সবই বয়ে যায় সাজেদুলের ওপর দিয়ে।

সেই থেকে ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে শিকলে বন্দী জীবনযাপন করছেন প্রতিবন্ধী তিনি।

প্রতিবন্ধী সাজেদুলের বাবা আব্দুস সামাদ বলেন, সংসারে অভাবের কারণে ছেলেকে উন্নত চিকিৎসা করতে পারিনি বলে আজকে শিকলে বেঁধে রাখতে হয়েছে। আল্লাহ কপালে যা রাখছে তাই হবে। কিছুদিন আগে আমার মেয়েটাকেও আল্লাহ ওপারে নিয়ে গেল। একমাত্র ছেলে আমার শিকলে বাঁধা।

এসময় তিনি সমাজের উচ্চবিত্তের কাছে ছেলের উন্নত চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা কামনা করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আলাউদ্দিন বলেন, আমরা সমাজসেবা অফিস থেকে অস্বচ্ছ প্রতিবন্ধীর ভাতার ব্যবস্থা করেছি। পাবনা মানসিক হাসপাতালে সমাজসেবার কার্যক্রম আছে সেখানে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও বিভিন্ন সরকারি অনুদানে তাকে সহযোগিতা করতে পারবো।

এসবি

 

: আরও পড়ুন

আরও