সিরাজগঞ্জ মনসুর আলী মেডিকেলে চালু হলো করোনা ল্যাব
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

সিরাজগঞ্জ মনসুর আলী মেডিকেলে চালু হলো করোনা ল্যাব

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: ৬:২৫ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০

সিরাজগঞ্জ মনসুর আলী মেডিকেলে চালু হলো করোনা ল্যাব
সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) নির্ণয় পিসিআর ল্যাব উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের একাডেমিক ভবনে ফিতা কেটে রিয়েল টাইম পলিমার চেইন রি-অ্যাকশন (পিসিআর) ল্যাবটির উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহম্মেদ, পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম, সিভিল সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম, শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ডা. কৃষ্ণ কুমার পাল, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শাহীন রেজা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাড. কে এম হোসেন আলী হাসান, পৌর মেয়র সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তারই একটি বড় অংশ এই পিসিআর ল্যাব স্থাপন। এতে করে দ্রুত সময়ের মধ্যে সিরাজগঞ্জের মানুষের করোনা ভাইরাস নির্ণয় করা সম্ভব হবে।

এ সময় অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না বলেন, পিসিআর মেশিন চালুর মাধ্যমে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে সিরাজগঞ্জের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আরেকধাপ এগিয়ে গেল। ফলে কম সময়ে ফলাফল পাওয়া যাবে এবং অধিক পরিমাণে পরীক্ষা করা সম্ভব হবে। সিরাজগঞ্জকে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মুক্ত করতে সকল কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে এবং সার্বক্ষণিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হবে।

শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ডা. কৃষ্ণ কুমার পাল বলেন, করোনা নির্ণয়ে আরটি পিসিআর ল্যাব থেকে প্রতি শিফটে ৯৪ জনের স্যাম্পল পরীক্ষা করা সম্ভব। প্রতিদিন দুই শিফটে ১৮৮ জনের করোনা নির্ণয় করা যাবে। কলেজের একাডেমিক ভবনের ৫ম তলায় এ ল্যাবটি স্থাপন করা হলো। আজ মঙ্গলবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ল্যাবটি যাত্রা শুরু করলো।

করোনা মানেই মৃত্যু নয়, সচেতনতার মাধ্যমেই করোনা মোকাবেলা সম্ভব মন্তব্য করে অধ্যক্ষ ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, শহীদ এম. মনসুর আলী মেডিক্যাল কলেজের নতুন একাডেমিক ভবনের ৫ম তলায় করোনা ভাইরাস পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য প্রফেসর ৮ জন, প্রভাষক ৮ জন, ল্যাব টেকনিশিয়ান ৮ জনসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে ৩১জনের একটি টিম গঠন করা হয়েছে। প্রতিদিন
সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত সিভিল সার্জন অফিস থেকে প্যাকেটজাত নমুনা সংগ্রহ করা হবে। প্রাথমিক পর্যায়ে নমুনা সংগ্রহের রিপোর্ট দিতে এক সপ্তাহ সময় লাগবে। পরবর্তীতে প্রতিদিনের নমুনা সংগ্রহের রিপোর্ট প্রতিদিনই দেয়া সম্ভব হবে।

একে/পিএসএস

 

: আরও পড়ুন

আরও