‘অনুপ্রবেশে’ কঠোর বার্তা আওয়ামী লীগের
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০ | ১৫ কার্তিক ১৪২৭

‘অনুপ্রবেশে’ কঠোর বার্তা আওয়ামী লীগের

সালাহ উদ্দিন জসিম ১২:১৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৪, ২০২০

‘অনুপ্রবেশে’ কঠোর বার্তা আওয়ামী লীগের
টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ। ক্ষমতার স্বাদ নিতে পাইকারি দরে অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটছে দলটিতে। কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত এ অনুপ্রবেশের হিড়িক। আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও গ্রুপিংয়ের কারণে নিজের দল ভারী করতে নেতারাও এ সুযোগ করে দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে কঠোর বার্তা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। গতকাল শনিবার গণভবনে দলের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় নেতাদের হাতে অনুপ্রবেশকারীদের একটি তালিকাও তুলে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। তাদের দল থেকে বের করে দেওয়ার জন্যও নির্দেশ দিয়েছেন।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা জানিয়েছেন, কোনো অবস্থাতেই যেন সুবিধাবাদী মহল অনুপ্রবেশ করতে না পারে। এটি কঠোরভাবে নজরে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন সভাপতি শেখ হাসিনা। কেন্দ্রে জমা দেওয়া কমিটির মধ্যে অনুপ্রবেশকারীদের বাদ দেওয়া ও ত্যাগী বাদ পড়ল কিনা তাও দেখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও দীর্ঘদিন সম্মেলন হয় না, এমন শাখায় সম্মেলন আয়োজনে কাজ করতেও নির্দেশ দিয়েছেন দলীয় প্রধান।

দলের এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির নেতাদের সমন্বয়ে বিভাগভিত্তিক আটটি টিম গঠন করা হয়েছে বৈঠকে। টিম নেতারা সংশ্লিষ্ট বিভাগের জেলা শাখাগুলোতে সফর করে সংগঠনকে গতিশীল করবেন। তৃণমূলের দ্বন্দ্ব নিরসন করে ঐক্যবদ্ধ করার পাশাপাশি মেয়াদোত্তীর্ণ জেলায় সম্মেলন ও কমিটি গঠনে কাজ করবেন। এছাড়া ওই টিম জেলাগুলোর জমা দেওয়া কমিটি যাচাই-বাছাই করবেন। নেতাদের রোষানলে পড়ে কোনো ত্যাগী নেতা বাদ পড়ে গেল কীনা দেখবে। অনুপ্রবেশকারী কেউ থাকলে বাদ দেবে। এরপর তারা দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে জমা দেবেন কমিটি। তিনি যাচাই-বাছাই করে জেলা কমিটির অনুমোদন দেবেন।

আট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্তরা হলেন- ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম। অন্যান্য সদস্যের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, মুহাম্মদ ফারুক খান, আব্দুল মান্নান খান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, শিক্ষা ও মানব সম্পদবিষয়ক সম্পাদক শামসুর নাহার চাপা, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান, নির্বাহী পরিষদ সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, কামরুল ইসলাম, এবিএম রিয়াজুল কবির কাওছার, আনোয়ার হোসেন, ইকবাল হোসেন অপু, সানজিদা খানম, শাহাবুদ্দিন ফরাজী ও সাঈদ খোকন।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন। অন্যান্য সদস্য সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, আবদুল মতিন খসরু, নির্বাহী পরিষদ সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ওয়াসিকা আয়েশা খান, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশিদ, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, নির্বাহী পরিষদ সদস্য দীপংকর তালুকদার।

খুলনা বিভাগীয় টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক। অন্য সদস্যরা হলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, পীযূষ কান্তি ভট্টাচার্য, শ্রম ও জনশক্তিবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, নির্বাহী পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. আমিরুল আলম মিলন, পারভিন জামান কল্পনা ও অ্যাডভোকেট গ্লোরিয়া সরকার ঝর্ণা।

রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। অন্যান্য সদস্য হলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মো. আব্দুর রহমান, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, নির্বাহী পরিষদ সদস্য নুরুল ইসলাম ঠাণ্ডু, প্রফেসর মেরিনা জাহান ও বেগম আখতার জাহান।

সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক। অন্যান্য সদস্য সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবীর নানক, নুরুল ইসলাম নাহিদ, নির্বাহী পরিষদ সদস্য ড. মুশফিক হোসেন চৌধুরী ও উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান।

বরিশাল বিভাগীয় টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন। টিমের অন্যান্য সদস্য দলটির নির্বাহী পরিষদ সদস্য আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ, আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, নির্বাহী পরিষদ সদস্য গোলাম কবীর রাব্বানী চিনু ও আনিসুর রহমান।

রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, শাজাহান খান, কোষাধ্যক্ষ এইচএন আশিকুর রহমান, নির্বাহী পরিষদ সদস্য হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া ও অ্যাডভোকেট সফুরা বেগম রুমি।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় টিমের সমন্বয়ক দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। অন্যান্য সদস্য দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, নির্বাহী পরিষদ সদস্য মারুফা আক্তার পপি, উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং।

এইচআর

 

 

আরও পড়ুন

আরও