টাকা না দেওয়ায় যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখলেন পাওনাদার
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

>

টাকা না দেওয়ায় যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখলেন পাওনাদার

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ১০:১০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২২

টাকা না দেওয়ায় যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখলেন পাওনাদার
পাওনা টাকা না দেওয়ায় ৩ দিন ধরে যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখার অভিযোগ উঠেছে পাওনাদারের বিরুদ্ধে।

রাজবাড়ীর পাংশায় মিঠু মোল্লা (৩৩) নামে এক যুবকের পায়ে শিকল দিয়ে তিন দিন বেঁধে রেখে নির্যাতনের ঘটনাটি ঘটে। নির্যাতনের শিকার যুবক মিঠু মোল্লা পাবনার সুজানগর উপজেলার মৃত দিনু মোল্লার ছেলে।

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

জানা যায়, মিঠু মোল্লা কয়েক বছর ধরে পাংশা শহরে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। সেই সূত্রে পাংশা শহরের শহিদ শেখের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। মিঠু চার মাস আগে একটি জমি কিনে দেওয়ার মধ্যস্থতা করে শহিদ শেখের কাছ থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা নেয়। এরপর মিঠু জমিও দেয়নি আবার টাকাও পরিশোধ করেননি। রোববার মিঠুকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পায়ে শিকল পরিয়ে ঘরের বারান্দায় বেঁধে রাখেন শহিদ শেখ। মঙ্গলবার বিষয়টি পুলিশ জানতে পেরে তাকে উদ্ধার করে।

টাকা নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে মিঠু মোল্লা বলেন, চার মাস আগে জমির কথা বলে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা নিয়েছিলাম। তবে সেই টাকা আর ফেরত দিতে পারিনি।

শহিদ শেখ বলেন, জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয়ে আমি মিঠু মোল্লাকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা দিয়েছিলাম। চার মাস হয়ে গেলেও সে আমার টাকা পরিশোধ করেনি। টাকা চাইলেই বিভিন্ন অজুহাত দেখায়। তাই আমার পাওনা টাকা না পাওয়ায় তাকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছি। তবে তার ওপর কোনো শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়নি।

পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান জানান, ঘটনাটি শোনার পর আমরা ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে থানায় এনেছি। এ সময় তিনজনকে আটক করা হয়। ভুক্তভোগী তার বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে ভুক্তভোগী যেহেতু টাকা পয়সা আত্মসাৎ করেছে, তাই অভিযুক্তরা চাইলে তার বিরুদ্ধে মামলা করতে পারবে।

এএইচএ
 

আরও পড়ুন

আরও
               
         
close