টাঙ্গাইলে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা, বাস চলাচল বন্ধ
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ১৩ কার্তিক ১৪২৮

টাঙ্গাইলে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা, বাস চলাচল বন্ধ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ৮:১৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২১

টাঙ্গাইলে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা, বাস চলাচল বন্ধ
টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় পরিবহন শ্রমিকদের হামলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল রনী আহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মামলা হওয়ায় বুধবার বাস শ্রমিকরা সকল রুটের বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে। এতে দুরের যাত্রীদের ভোগান্তি চরম আকার ধারন করেছে। ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে উপজেলা ভূমি অফিসের সার্টিফিকেট পেশকার মমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে পাপ্পু (৩৫) নামে এক শ্রমিকের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত নামা ১৫/২০ জনের বিরুদ্ধে ভূঞাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। 

থানা সূত্রে জানা যায়, ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড ও উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ের গেটের সামনে এলোপাথারি ভাবে পরিবহন পার্কিং করে দখল করার বিষয়টি উপজেলা আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে উঠানো হয়। মিটিংয়ে উপস্থিত অনেকেই পরিবহনের শৃঙ্খলা  ফিরিয়ে আনার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে। পরে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মঙ্গলবার দুপুরে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল রনী। 

এ সময় দুই পরিবহন শ্রমিককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানাও অনাদায়ে ১৫ দিনের কারাদন্ডের ঘোষনা দেওয়া হয়। এতে উপস্থিত শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তারা মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারীকমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল রনীকে অকথ্য ভাষায় গালি দেন। তারা এক পর্যায়ে সংগঠিত হয়ে তার উপর হামলা চালায়। শ্রমিকদের হামলায় তিনি আহত হন। পুলিশ ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যান। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। 

এদিকে মামলার প্রতিবাদে বাস শ্রমিকরা বুধবার দুপুর থকে সকল রুটের বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে। এতে দুরের যাত্রীদের ভোগান্তি চরম আকার ধারন করেছে। তারা সিএনজি, অটোরিকশা এলেঙ্গা গিয়ে নিজ নিজ গন্তব্যে  যাচ্ছেন।

ঢাকার যাত্রী শামছুল আলম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জরুরী কাজে ঢাকা যাব। তাই বাসস্ট্যান্ডে এসে শুনি বাস বন্ধ রেখেছে শ্রমিকরা। কথায় কথায় বাস বন্ধ রাখা অমানবিক।

রফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, বাস শ্রমিকদের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ডে যানজট নিত্যদিনের  ঘটনা। প্রতিবাদ করলেই শ্রমিকদের হাতে লাঞ্চিত হতে হয়। এর প্রতিকার হওয়া উচিত।

বাস চলাচল বন্ধের বিষয়ে ভূঞাপুর উপজেলা বাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার সুরুজ আলম জানান, মামলা হওয়ার ঘর গ্রেফতার এড়াতে আতঙ্কে শ্রমিকরা স্বেচ্ছায় বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন। এ জন্য ভূঞাপুর থেকে সকল  রোডের বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। যতদূর সম্ভব আলোচনা করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।  

ভূঞাপুর থানার ওসি মুহাম্মদ আব্দুল ওহাব জানান, এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইশরাত জাহান বলেন, উপজেলা আইন শৃঙ্খলা সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অবৈধ ভাবে গাড়ি পার্কিং বন্ধে ও জন দুর্ভোগ লাঘবে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। বাস শ্রমিকরা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব পালনে বাধা প্রদান করেছে ও তার উপর হামলা চালিয়ে তাকে আহত করেছে। বিষয়টি নিন্দনীয়। এ ব্যাপরে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

আরও পড়ুন

আরও