নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রী হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ২ কার্তিক ১৪২৮

নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রী হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

নোয়াখালী প্রতিনিধি ৬:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১

নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রী হত্যার দায়ে  একজনের যাবজ্জীবন
২০১২ সালের ১জুন নোয়াখালীর চাটখিলে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী বৃষ্টি আক্তারকে (১৩) ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যার মামলায় সেলিম নামের এক আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।
একইসাথে তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুরে আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মো. জয়নাল আবেদিন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সেলিম কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার আদমপুর গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে। 

আদালত সূত্রে জানা গেছে,  ২০১২ সালের ১ জুন সেলিম তার শশুরবাড়ি নোয়াখালীর  চাটখিল উপজেলার নাহারখীল গ্রামে অবস্থান করে। ওইদিন দুপুর থেকে বিকেলের মধ্যে কোন একসময় স্কুলছাত্রী বৃষ্টিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ও পরে হত্যা করে লাশ পাশ্ববর্তী হাজী আতিকুল্লার একটি পরিত্যক্ত টয়লেটে অর্ধউলঙ্গ অবস্থায় রেখে পালিয়ে যায়। 

পরে পুলিশ ওইস্থান থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পরদিন নিহতের ফুফা শামছুল আলম বাদি হয়ে সেলিমকে আসামী করে চাটখিল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

বুধবার দুপুরে পুলিশ জেলা কারাগার থেকে গ্রেপ্তারকৃত আসামী সেলিমকে আদালতে হাজির করে। শুনানি শেষে আদালতে সেলিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ওই অভিযোগ থেকে তাকে খালাস ও হত্যা মামলায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মো. জয়নাল আবেদিন।

একই সাথে ফৌজদারী কার্যবিধির ৩৫ ধারার বিধান মোতাবেক সেলিম ইতোপূর্বে হাজতবাস ছিল সংক্রান্তে মুলদন্ড থেকে বাদ দেওয়ার আদেশও দেওয়া হয়।

এসবিসি 
 

আরও পড়ুন

আরও