বিমা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ১০ বৈশাখ ১৪২৮

বিমা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:৪৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ০১, ২০২১

বিমা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিমার গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। দাবি পূরণে সতর্ক থাকতে হবে। গ্রাহকের পাওনা সহজে পাওয়ার বিষয়ে যত্নবান হতে হবে। পাশাপাশি আর্টিফিশিয়াল ক্ষতি দেখিয়ে কেউ যেন বিমা দাবি করতে না পারে, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।’

জাতীয় বিমা দিবস-২০২১ উপলক্ষে আজ সোমবার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের দেশে এক সমস্যা আছে। একটা সুবিধার ব্যবহারের চেয়ে অপব্যবহার করতে চায় অনেকে। এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। আমি হাতেনাতে ধরতে পেরেছি বলে বললাম। বিমা জীবন ঘনিষ্ঠ সেবা। এই সেবাকে যাতে অন্যভাবে ব্যবহার করতে না পারে, খেয়াল রাখতে হবে। অবশ্য এটা এখন অনেকে কমে গেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিমার সুফল সম্পর্কে সচেতনতার অভাব আছে। সচেতনতা বাড়াতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। জাতির পিতা এই সচেতনতা তৈরিতে কাজ করেছিলেন। ১৯৬১ সালের ১ মার্চ আলফা ইনস্যুরেন্স কোম্পানিতে আঞ্চলিক প্রধান হিসেবে যোগদান করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এখানে বসেই ৬ দফা রচনা করেছিলেন। তাই এটা শুধু বিমার নয়, রাজনৈতিকভাবেও গুরুত্বপূর্ণ।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষ একটা আমানত রাখছে, সেটাকে আবার কেউ যেন অন্যভাবে ব্যবহার করতে না পারে, সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি। মানুষকে যদি আপনি উদ্বুদ্ধ করতে পারেন, তাহলে প্রত্যেক মানুষ কিন্তু ছোটখাট ব্যবসা-বাণিজ্য যা-ই করুক, বা নিজের জীবন বিমা বা সবকিছু- তারা কিন্তু নিজেরা করবেন। এভাবে ব্যাপক প্রচার একান্তভাবে দরকার।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিমা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ প্রবর্তিত শিক্ষা বিমা, সুরক্ষা বিমা ও খেলোয়াড় বিমার উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা। অদূর ভবিষ্যতে দেশের সব শিক্ষার্থীকে শিক্ষা বিমার আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে পাইলট প্রকল্প হিসেবে ২০২১ সালে ৫০ হাজার শিক্ষার্থীকে শিক্ষা বিমার আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী এ সময় কয়েকজন শিক্ষার্থীর হাতে শিক্ষা বিমার সনদ তুলে দেন।

ওএস/এইচআর

 

আরও পড়ুন

আরও