'খিচুড়ি ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণের প্রস্তাব নিয়ে হৈ চৈ করার কিছু নেই'
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৫ আশ্বিন ১৪২৭

'খিচুড়ি ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণের প্রস্তাব নিয়ে হৈ চৈ করার কিছু নেই'

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:৩৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০

'খিচুড়ি ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণের প্রস্তাব নিয়ে হৈ চৈ করার কিছু নেই'
শিক্ষার্থীদের জন্যে রান্না করা খিচুড়ি ব্যবস্থাপনা দেখতে বিদেশে কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের প্রস্তাব নিয়ে হৈ চৈ করার মত কোনো অবস্থা নেই বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

সচিবালয়ে বুধবার এক ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, কিছু শিক্ষা নেওয়ার জন্য, খিচুড়ি পাকের শিক্ষা নয়, ব্যবস্থাপনা জানার জন্য, শেখার জন্য কীভাবে করছে কিছু টাকা ধরা আছে।

এটি বিশাল কোনো ক্ষতিকর ব্যবস্থা না, এটা প্রস্তাব। পরিকল্পনা কমিশন ও একনেক দেখবে, সংস্কার করবে। এটা নিয়ে হৈ চৈ করার মত কোনো অবস্থা নেই।

তিনি বলেন, আপনারা (উপস্থিত সাংবাদিক) মাইন্ড করবেন না, আপনাদের এই সাংবাদিকতায় কিছু বিএনপি, জামায়াতের লোকজন নানা ধরনের সাংবাদিকতার পেশা নিয়ে এখানে আসছে। তাদের কোনো জ্ঞান-গরিমা নেই, একটা হুট করে লিখে দিয়েই বোধহয় হয়ে গেল। সরকারের ভামমূর্তি কোথায় গেল না গেল এরা তা দেখে না।

‘অভিজ্ঞতা নেওয়ার দরকার আছে’ উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী জাকির বলেন, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের বিস্কুট দেওয়া হয়। তাদের দুপুরে খাবার দেওয়ার চিন্তাভাবনা করেছি। ১৯ হাজার ২৮২ কোটি টাকার প্রকল্পের প্রস্তাব করা হয়েছে, ১৬ উপজেলায় এই কর্মসূচি পাইলটিং করা হয়।

১৯৪১ সাল থেকে কেরালায় স্কুলমিল চালু আছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সেই অভিজ্ঞতা নেওয়ার জন্য আমি সেখানে যাই, তাদের বিভিন্ন প্রোগ্রাম দেখেছি। কীভাবে পরিচালনা করে তা দেখেছি। সেটা দেখে আমি এখানে পাইলটিং করেছি।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হোসেন জানান, ৫০৯টি উপজেলার প্রত্যেক উপজেলা থেকে একজন করে কর্তকর্তাকে দেশের বাইরে পাঠানোর বিষয়ে প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু পরিকল্পনা কমিশন দুটি টিম করে কর্মকর্তাদের বিদেশে পাঠানোর সুপারিশ করেছে।

ওএস/এসবি

 

: আরও পড়ুন

আরও