করোনায় শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্ষমতা বাড়াতে ‘অনলুম-বিলুম’
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ৬ জুলাই ২০২০ | ২২ আষাঢ় ১৪২৭

করোনায় শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্ষমতা বাড়াতে ‘অনলুম-বিলুম’

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

করোনায় শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্ষমতা বাড়াতে ‘অনলুম-বিলুম’
বর্তমানে করোনার ভয়াবতার সম্পর্কে আপনাকে আর নতুন করে কিছু বলতে হবে না। এর সম্পর্কে সারা বিশ্বের মানুষ জানে। আর এটাও জানে যে করোনায় আক্রান্ত হলে সবার আগে যে সমস্যা হয় তা হলো  শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যা। দেয়ে অক্সিজেনে প্রবাহ কমে যেয়ে নানা জটিলতা তৈরি হয়। আর এই পরিস্থিতে যেহেতু এখনো কোনো ঔষধ আবিষ্কার হয়নি তাই আপনাকে নির্ভর করতে হবে নিজের মনোবল ও প্রাকৃতিক চিকিৎসায়। আর প্রাকৃতিক চিকিৎসায় মাঝে সবার আগেই আসে যোগচর্চা। যোগ চর্চা এমন এক চিকিৎসা পদ্ধতি যা আপনি নিজেই নিজের ট্রিট্মেন্ট করতে পারবেন। যোগচর্চাতে এমন অনেক ক্রিয়া, আসন ও প্রাণায়াম আছে যা অনুশীলনের মাধ্যমে আপনি আপনার-

- দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারবেন।  

-শরীরে অক্সিজেনের প্রবাহ বাড়াতে পারবেন।

- শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্ষমতা বাড়াতে পারবেন।

- মানসিক শক্তি বাড়িয়ে অবসাদ থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

- চিন্তা শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

- রাতে ঘুম ভালো হওয়ার জন্য মহাঔষধ হিসেবে কাজ করে।

- সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারেন।

. আসুন আজ আমরা অন্য কিছু না হোক অন্তত করোনাকালীন আতঙ্ক থেকে মুক্তি পেতে প্রাণায়ামের মাধ্যমে নিজের শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্ষমতা বাড়ানোর উপায় ও নিয়ম জেনে নেই।

প্রাণায়ামঃ প্রাণায়াম অর্থ প্রাণ+বায়ু  অর্থাৎ প্রাণ থেকে যে বাতাস বেড় হয় বা প্রাণে যে বাতাস প্রবেশ করানো হয়। আরো সহজভাবে বললে বলা যায় আপনি আপনার ইচ্ছে মতো শ্বাস-প্রশ্বাসকে কন্ট্রোল করার যে প্রক্রিয়া ব্যবহার করবেন তাকে প্রাণায়াম বলে।

করোনাকালীন শ্বাস-প্রশ্বাস ঠিক রাখতে বা কেউ আক্রান্ত হলে কিভাবে এর মাধ্যমে নিজেকে সুস্থ রাখতে পারবেন। আজ আমরা জানবো অনলুম বিলুম প্রাণায়াম সম্পর্কে।

অনলুম বিলুম:

কিছু নিয়ম মেনে নাকের দুই পাশের ছিদ্রু দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস চালানো বা আপনার ইচ্ছে মতো কন্ট্রোল করার প্রক্রিয়াকে অনলুম-বিলুম বলে।

যেভাবে করবেন:- অনলুম বিলুম করার অনেকগুলো নিয়ম আছে। আজ আমরা সবচাইতে সহজ নিয়মটি দেখবো। প্রথমে একটি ইয়োগা ম্যাট অথবা আরামদায়ক জায়গায় পদ্মাসনে, সুখাসন, বজ্রাসন বা যেকোনো আরামদায়ক পজিশনে বসুন। মেরুদণ্ড সোজা রাখুন। মাথা কোনো দিকে না ঝুকিয়ে সোজা রাখুন। এবার বা হাতে ধ্যান মুদ্রা অথবা অপানবায়ু মুদ্রায় রাখুন।  ডান হাতের বৃদ্ধা আঙুল ডান নাকের পাশে রেখে হাল্কা চাপ দিন। যেন নাকের ছিদ্রু বন্ধ হয় কিন্তু নাক বেঁকে না যায়। এবার বা নাক দিয়ে ধীরে ধীরে আরাম করে, কোনো শব্দ না করে লম্বা শ্বাস নিন। ২ থেকে ৫ সেকেন্ড নিঃশ্বাস আটকে রাখুন। আটকে রাখা অবস্থায় ডান হাতের অনামিকা আঙুল দিয়ে বা নাক বন্ধ করুন। তারপর ডান নাক দিয়ে  ধীরে ধীরে  নিঃশ্বাস ছাড়ুন।

এবার ঠিক একইভাবে ডান নাক দিয়ে ধীরে ধীরে আরাম করে কোনো শব্দ না করে লম্বা শ্বাস নিন। ২ থেকে ৫ সেকেন্ড নিঃশ্বাস আটকে রাখুন। আটকে রাখা অবস্থায় ডান হাতের বৃদ্ধা আঙুল দিয়ে ডান নাক বন্ধ করুন। তারপর বা নাক দিয়ে  ধীরে ধীরে নিঃশ্বাস ছাড়ুন।

নিঃশ্বাস ছাড়া নেয়ার সঠিক হিসেব রাখতে চাইলে শ্বাস নেয়ার সময় মনে মনে ১ থেকে ৫ পর্যন্ত কাউন্ট করুন এবং শ্বাস ছাড়ার ছাড়ার সময় ১ থেকে ১০ পর্যন্ত কাউন্ট করুন। এভাবে ৪ থেকে ৮ বা ১০ রাউন্ড করুন। এরপর কিছুক্ষণ বসে আরাম করুন।

সতর্কতাঃ

-প্রাণায়াম করার জন্য তেমন কোন বিধি নিষেধ নেই। মোটামুটি সবাই প্রাণায়াম করতে পারবেন।

-প্রতিদিন সকালে এটি করার চেষ্টা করুন। আপনার সারাদিন ভালো যাবে।

- ভরা পেটেও প্রাণায়াম করতে পারবেন। তবে খালি পেটে করা ভালো। বেশি উপকারিতা পাবেন।

তথ্য ও ছবি : এলিজা চৌধুরী, ইয়োগা প্রশিক্ষক, Eliza’s Yogart, ইয়োগা সেন্টার।

ইসি/

 

: আরও পড়ুন

আরও