আট উপায়ে সন্তানকে সুখী ও খুশী রাখুন
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ | ২১ চৈত্র ১৪২৬

আট উপায়ে সন্তানকে সুখী ও খুশী রাখুন

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:৪৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০১৯

আট উপায়ে সন্তানকে সুখী ও খুশী রাখুন

সন্তানদের সুখের প্রশ্নে প্রথমেই আমাদের চিন্তায় আসে তাদের সুস্থতা, শিক্ষায় উন্নতি, দক্ষতা অর্জন অথবা যে কোনো সাফল্যের কথা। কিন্তু শুধু উন্নতি ও সাফল্যের মধ্যেই কি সুখ থাকে? শুধু সাফল্য ও উন্নতি নিয়ে বড় হলেই কি একটি শিশু সুখী হতে পারে? 

এ নিবন্ধে সন্তানকে খুশি ও সুখী রাখার ৮টি উপায় নিয়ে আলোচনা করা হলো।

১. নিজে সুখী হোন
সুখী পিতা-মাতার সন্তানেরা স্বভাবতই সুখী হয়। যে পিতা-মাতা অসুখী জীবন যাপন করে, তাদের সন্তানও সুখী হতে পারে না। সুতরাং, নিজেকে সবসময় প্রফুল্ল ও আনন্দিত রাখুন। আপনার এ প্রফুল্লতা আপনার সন্তানের মনেও ছড়িয়ে পড়বে।

২. দায়িত্ব দিন ও তার নিজের গুরুত্ব বুঝান
সুখ অনেকাংশে নির্ভর করে নিজের গুরুত্ব উপলব্ধির উপর। কেউ যদি মনে করে, সে কোনো কাজের যোগ্য না, চারপাশের জন্য তার কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই, তখন সে নিজের জীবনকে অর্থহীন মনে করে। তার মনে সুখ থাকতে পারে না। নিজেকে কোনো দায়িত্ব পালনের যোগ্য মনে করতে পারলে সে নিজের স্বার্থকতা অনুভব করতে পারবে।

আপনার সন্তানকে যদি আপনি ঘরের জিনিসপত্র, আসবাব সাজিয়ে রাখার মত পরিবারের ছোট ছোট কিছু দায়িত্ব দেন, তবে সে নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করবে। এতে সে আনন্দের সাথেই তার উপর দেওয়া দায়িত্ব পালন করবে।

৩. খেলার সময় দিন
আজকাল শিশুদের পড়াশুনার জন্য এতটাই ব্যস্ত থাকতে হয় যে তারা নিজেদের মত কাটানোর সময় যথেষ্ট পায়না। ফলে তাদের জীবনে আনন্দ, প্রফুল্লতা অবশিষ্ট থাকে না। 

আপনার সন্তানকে খেলার জন্য এবং তার নিজের মত সময় কাটানোর জন্য যথেষ্ট অবসর দিন। এতে সে আনন্দ ও প্রফুল্লতার সাথে বেড়ে উঠবে।

৪. পছন্দের সুযোগ দিন
সাধারণত ছোট সন্তানরা পছন্দ করার যথেষ্ট সুযোগ কম পায়। ক্রমাগতভাবে তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয় কোথায় সে যাবে, কি করবে এবং কি খাবে।

ছোট ছোট কিছু বিষয়ে তাকে পছন্দ করার সুযোগ দিন। উদাহরণস্বরূপ তার কাপড় কেনার সময় তাকে নিজের কাপড় পছন্দ করার সুযোগ দিন। কেউ নিজের পছন্দের কিছু পেলে তার সুখের কোনো তুলনা হয় না।

৫. সম্পর্ক তৈরির শিক্ষা দিন
গবেষকরা জানিয়েছেন, যে ব্যক্তি অধিক লোকের সাথে তার সম্পর্ক তৈরি ও বজায় রাখে, সে অধিক সুখী হয়। আপনার সন্তানকে মানুষের সাথে সম্পর্ক তৈরি শিক্ষা দিন। 

তাদের অন্যের সাথে কথা বলতে, পরিচিত হতে উৎসাহিত করুন। পাশাপাশি তার সাধ্যানুযায়ী অন্যকে সাহায্য করার শিক্ষা দিন। এর মাধ্যমে আপনার সন্তান এক অপার্থিব আনন্দ লাভ করবে।

৬. নিঃশর্তভাবে ভালোবাসুন
আপনার সন্তানকে নিঃশর্তভাবে ভালোবাসুন এবং আপনার ভালোবাসাকে তার উপলব্ধির মধ্যে নিয়ে আসুন। আপনার ভালোবাসা তাকে আত্মবিশ্বাসী করবে। সন্তান যদি উপলব্ধি করতে পারে, তার সুখে-দুঃখে আপনি তার পাশে থাকবেন, তবে সে প্রশান্তি ও সুখ লাভ করবে।

৭. ঘরকে পরিপাটি রাখুন
আপনার ঘরকে পরিপাটি ও সুসজ্জিত রাখুন। অগোছালো ও অপরিচ্ছন্ন ঘরে কেউই সুখ ও শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করতে পারে না। সন্তানের সুখের জন্য ঘর পরিপাটি ‍ও সুসজ্জিত রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

৮. অনুরাগ প্রদর্শন করুন
আপনার সন্তানকে জড়িয়ে ধরুন। তার মাথায় হাত বুলিয়ে দিন, গালে চুমু খান। সন্তান এতে সকল প্রকার চাপমুক্ত হয়ে মানসিক প্রশান্তি লাভ করতে পারবে।

এমএফ/

 

ইসলাম: আরও পড়ুন

আরও