সুইমস্যুট রাউন্ডে ধরাশায়ী ইউনিভার্স সুন্দরীরা!
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

সুইমস্যুট রাউন্ডে ধরাশায়ী ইউনিভার্স সুন্দরীরা!

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

সুইমস্যুট রাউন্ডে ধরাশায়ী ইউনিভার্স সুন্দরীরা!

জর্জিয়ার আটলান্টায় বসেছিল মিস ইউনিভার্সের ৬৮তম আসর। সেখানে চোখ ধাঁধানো সব সুন্দরী এসেছিলেন নিজেদের দেশকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে। মঞ্চে চলছিল সুইমস্যুট রাউন্ড। ভেজা র‌্যাম্পে হাই হিল পরে হেঁটে আসছেন একের পর এক সুন্দরী। আর সেখানেই আচমকাই পা পিছলে পরে গেলেন সুন্দরীরা।

বিশ্বের ৯০ জন সুন্দরী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। সেখানেই চলছিল সুইমস্যুট রাউন্ড। বিকিনি পরে একের পর এক মডেল আসছিলেন র‌্যাম্প মাতাতে। ছিপছিপে গড়নের সুন্দরীরা সব কিছুতেই ছিলেন একদম পারফেক্ট। আচমকাই ছন্দ পতন হয় মঞ্চে।

উদ্যোক্তাদের মুখ লজ্জায় লাল হয়ে গেলেও দর্শক এবং সুন্দরীরা কেউই পিছিয়ে পড়েননি। পড়ে গেলেও, নিমেষে উঠে দাঁড়িয়ে সামনে এগিয়ে যায় তারা। তবে, আহতও হননি কেউ। সুন্দরীদের এই স্পিরিটকে অভিনন্দন  জানিয়েছেন দর্শকরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার সুন্দরী জোজিবিনি তুনঝির মাথায় এবার মুকুট উঠেছে। তবে আলোচনায় এসেছেন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের শিরিন আক্তার শিলাও। তিনি মিস ইউনিভার্স ন্যাশনাল কস্টিউম ইভেন্টে লাল জামদানি শাড়ি ও রিকশার হুড পরেন। রিকশার হুডে শোভা পেয়েছে ঐতিহ্যবাহী রিকশা পেইন্ট। ইতিমধ্যে এই পোশাক বেশ সাড়া জাগিয়েছে দিয়েছে।

বিশেষ করে রিকশার হুডকে যে পোশাকের অংশ হিসেবে ব্যবহার করা যায়, সেটা আগে কেউ এভাবে ভাবেনি। দুই কানে শোভা পেয়েছে ‘ক’ বর্ণের ঝোলানো দুল। গলায়ও ঝুলেছে বাংলা বর্ণমালা।

এই আসর শুরু হয় ৯০টি দেশের ৯০ জন প্রতিযোগী নিয়ে। সেখান থেকে সেমি ফাইনালে উঠে আসেন ২০ জন। যার মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশর শিলাও। তবে তিনি সেরা দশে স্থান না পেলেও বিশ্বের দ্বারবারে নিজের সাংস্কৃতিকে তুলেছেন।

এসকে

 

: আরও পড়ুন

আরও