আপত্তিকর অডিও আমার নয়, দাবি করে ইবি শিক্ষকের থানায় জিডি
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ৯ আগস্ট ২০২০ | ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

আপত্তিকর অডিও আমার নয়, দাবি করে ইবি শিক্ষকের থানায় জিডি

ইবি প্রতিনিধি ১২:০৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৪, ২০২০

আপত্তিকর অডিও আমার নয়, দাবি করে ইবি শিক্ষকের থানায় জিডি
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া আপত্তিকর অডিও মিথ্যা ও গভীর ষঢ়যন্ত্র দাবি করে সাধারণ ডায়েরি করেছেন ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান। শুক্রবার রাতে ঝিনাইদহ সদর থানায় এ ডায়েরি করেন তিনি।

ডায়েরি সূত্রে, অজ্ঞাতনামা স্বার্থান্বেষী মহল সুপরিকল্পিতভাবে অডিও প্রযুক্তির মাধ্যমে সম্পাদন করে আমার কণ্ঠস্বর হুবহুব নকল করে আপত্তিকর অডিও ক্লিব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে। ফেসবুকের জাল আইডি দিয়ে মানসম্মান নষ্ট ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। কে বা কারা এসব করছে তা আমার অজানা। এ ধরণের অপচেষ্টা শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের নয় শিক্ষক সমাজের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। যেসব ফেক আইডির মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য প্রচার করা হচ্ছে তা উদ্ধারপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের আবেদন জানাচ্ছি। কুচক্রী মহলের মানহানিকর মিথ্যা বানোয়াট তথ্য প্রকাশের বিরুদ্ধে আইনি সুরক্ষা ও সামাজিক নিরাপত্তা প্রদানে বিষয়টি সাধারণ ডায়েরিতে অর্ন্তভুক্ত করার অনুরোধ করছি বলে ডায়েরিতে উল্লেখ করেন ড. মিজানুর রহমান।

অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান বলেন,‘এটা আমার কণ্ঠ নয়। এই অডিও এর সাথে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। আমার পেশাগত ও সামাজিক মর্যাদা ক্ষুন্ন করার হীন প্রয়াসের অংশ হিসেবে একটি কুচক্রী মহল উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমার কণ্ঠ ইডিট করে এই ঘৃণ্য কাজ করেছে। এ বিষয়ে আমি ঝিনাইদহের সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। যার নম্বর ১৪৬।’

গত মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নারী শিক্ষার্থীর সাথে অশ্লীল ফোনালাপের অডিও ভাইরাল হয়। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ড. মিজানুর রহমানকে টিএসসিসির পরিচালক পদ থেকে অব্যহতি প্রদান করেন। এছাড়াও ঘটনা খতিয়ে দেখতে আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. হালিমা খাতুনকে আহ্বায়ক এবং ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম ও শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. শেলিনা নাসরিনকে সদস্য করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

আইআর/এইচকে

 

: আরও পড়ুন

আরও