বার্সা-রিয়ালের উপর চাপ বাড়াল অ্যাতলেতিকো
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ১০ বৈশাখ ১৪২৮

বার্সা-রিয়ালের উপর চাপ বাড়াল অ্যাতলেতিকো

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ০১, ২০২১

বার্সা-রিয়ালের উপর চাপ বাড়াল অ্যাতলেতিকো
শনিবার সেভিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে পয়েন্টের ব্যবধানটা ২-এ নামিয়ে এনেছিল বার্সেলোনা। রিয়াল মাদ্রিদ পিছিয়ে ছিল ৩ পয়েন্টে। যা নিশ্চিতভাবেই বার্সেলোনা ও রিয়াল শিবিরে লিগ শিরোপার স্বপ্নে রঙ লাগিয়েছিল। কিন্তু গতকাল রাতে বার্সেলোনা ও রিয়ালের উপর চাপটা আবার বাড়িয়ে দিল অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। কাল যে আবার জয় পেয়েছে অ্যাতলেতিকো। ভিয়ারিয়ালের মাঠে গিয়ে দিয়েগো সিমিওনের দল জিতেছে ২-০ গোলে। যে জয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে আবার ৫ পয়েন্টে এগিয়ে গেল অ্যাতলেতিকো।

অ্যাতলেতিকো ম্যাচও খেলেছে বার্সেলোনার চেয়ে একটি কম। ২৪ ম্যাচ খেলে শীর্ষে থাকা অ্যাতলেতিকোর পয়েন্ট ৫৮। ২৫ ম্যাচে বার্সেলোনার পয়েন্ট ৫৩। ২৪ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৫২।

মানে ম্যাচ সমান খেললেও নগরপ্রদ্বিন্দ্বী অ্যাতলেতিকোর চেয়ে পূর্ণ ৬ পয়েন্টে পিছিয়ে রিয়াল। অবশ্য আজ রাতেই রিয়ালের জন্য সুযোগ আছে পয়েন্টের ব্যবধানটা ৩-এ নামিয়ে আনার। তবে সেজন্য আজ রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে রিয়ালকে অবশ্যই জিততে হবে। জিতলে বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলে আবার দুই নম্বরেও উঠে যেতে পারবে জিনেদিন জিদানের দল।

নিজেদের মাঠে সোসিয়েদাদের বিপক্ষে রিয়াল জিততে পারবে কিনা, সেটা রাতেই জানা যাবে। তবে গতকাল রাতে অ্যাতলেতিকো জিতেছে কিছুটা ভাগ্যের জোরে, কিছুটা নিজেদের চেষ্টায়। হ্যাঁ, নিজেদের চেষ্টা এবং ভাগ্যের সহায়তার সংমিশ্রণে ভিয়ারিয়ালের মাঠ থেকে ২-০ জয় নিয়ে ফিরেছে সিমিওনের দল। ভিয়ারিয়ালের মাঠ এস্তাদিও ডে লা সেরামিকায় অ্যাতলেতিকো প্রথম এগিয়ে যায় আত্মঘাতী গোলে। ম্যাচের ২৭ মিনিটে দলকে বিপদমুক্ত করতে গিয়ে বল নিজেদের হালেই জড়িয়ে দেন ভিয়ারিয়ালের ডিফেন্ডার আলফোনসো পেদ্রাজা।

ভাগ্যে পাওয়া এই ১-০ গোলের লিড নিয়েই জয়ের দিকে হাঁটছিল অ্যাতলেতিকো। অবশেষে ৬৯ মিনিটে নিজেদের চেষ্টাতেও গোল পেয়ে যায় মাদ্রিদের ক্লাবটি। দলের হয়ে দ্বিতীয় এই গোলটি করেন পর্তুগালের তরুণ ফরোয়ার্ড হুয়াও ফেলিক্স। দারুণ এক গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন ঠিক।

তবে গোল উদযাপন করতে গিয়ে একটা বিতর্কেরও জন্ম দিয়েছেন পর্তুগালের ২১ বছর বয়সী তরুণ। গোল করেই হুয়াও ফেলিক্স মুখে আঙুল দিয়ে এমন ভঙ্গিতে উদযাপন করেন, যার বার্তা ছিল একটাই ‘চুপ থাকো বা মুখ বন্ধ রাখো!’

২০১৯ সালে পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকা থেকে অনেক চড়া দামে হুয়াও ফেলিক্সকে কিনে এনেছে অ্যাতলেতিকো। তাকে ঘিরে অ্যাতলেতিকোর কোচ-কর্তা-সমর্থকদের প্রত্যাশা ছিল অনেক। কিন্তু হুয়াও ফেলিক্স প্রত্যাশার ছিটে-ফোটাও পূরণ করতে পারছেন না। এই মৌসুমেও যেমন এ পর্যন্ত ২৯ ম্যাচে করেছেন মাত্র ১০ গোল! অন্য ফরোয়ার্ডদের ম্যাচ আর গোল পরিসংখ্যান প্রায় সমানে সমানে, সেখানে হুয়াও ফেলিক্সের কিনা ২৯ ম্যাচে ১০ গোল। এমন অফফর্মের কারণে স্বাভাবিকভাবেই পর্তুগিজ তরুণকে প্রতিনিয়ম সইতে হচ্ছে সমালোচনা।

কাল বিশেষ ভঙ্গির উদযাপন করে হুয়াও ফেলিক্সযেন সেই সমালোচনারই জবাব দিলেন! মুখে আঙুল ঠেকিয়ে যেন নিন্দুকদের জানিয়ে দিলেন, ‘সমালোচনা অনেক করেছ, এবার মুখটা বন্ধ রাখো!’ সমালোচনার জবাব দিতে মুখে আঙুল গুজে গোল উদযাপনের রীতিটা ফুটবলে বহুদিনের পুরোনো।

দুঃসময়ে গোল পাওয়ার পর ফুটবলাররা প্রায়শ’ই এমনটা করেন। কিন্তু তরুণ হুয়াও ফেলিক্স জবাব দিতে গিয়েও ফেঁসে গেছেন! তার এমন উদযাপন নিয়ে এরই মধ্যে নতুন বিতর্ক শুরু হয়েছে। সমালোচকরা যেন বোঝাতে চাইছেন, একটা গোল করেই এমনটা করা উচিত হয়নি হুয়াও ফেলিক্সের!

কেআর

 

আরও পড়ুন

আরও