একশ বছরের ইতিহাসে এত গোল খায়নি জার্মানি
Back to Top

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

একশ বছরের ইতিহাসে এত গোল খায়নি জার্মানি

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:২৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০২০

একশ বছরের ইতিহাসে এত গোল খায়নি জার্মানি
বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম পরাশক্তি জার্মানি। গতি আর শক্তির দানবিক ফুটবলে প্রতিপক্ষকে ধসিয়ে দিতে জুড়ি নেই তাদের। সেই দলটিই মঙ্গলবার সেভিয়ায় কাটাল এক দুঃস্বপ্নের রাত। নেশন্স লিগের ম্যাচে স্পেনের বিপক্ষে গুনে গুনে খেয়েছে ৬ গোল। বিপরীতের স্পেনের জালে একবারও বল জড়াতে পারেনি জোয়াকিম লো'র দল।

নিজেদের শত বছরের (আসলে ১১০ বছর) বছরের ইতিহাসে এতবড় পরাজয়ের লজ্জায় পড়তে হয়নি জার্মানিকে। তাদের ফুটবল ইতিহাসে গত রাতের হারটা দ্বিতীয় বৃহত্তম। এর আগে ১৯০৯ সালের ৩ মার্চ অক্সফোর্ডে সে সময়ের পরাশক্তি অস্ট্রিয়ার কাছে ৯-০ গোলে হেরেছিল তারা। এই অস্ট্রিয়ার কাছেই আবার ১৯৩১ সালে ৫-০ গোলে হেরেছিল জার্মানি। অবশ্য ওই দুইটি ছিল প্রীতি ম্যাচ। আর প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে এটাই সবচেয়ে বড় হার জার্মানির।

সেমি ফাইনালে উঠতে হলে গতকাল জয়ের বিকল্প ছিল স্পেনের। অন্যদিকে ড্র করলেই চলত জার্মানির। কিন্তু ড্র তো দূরের কথা ন্যূনতম প্রতিরোধও গড়তে পারেনি চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। ফোরান তোরেসের দারুণ এক হ্যাটট্রিক ও আলভারো মোরাতা, রদ্রি, মিকেল ওয়ারসাবালের গোলে লজ্জার হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। আর দুর্দান্ত জয় নিয়ে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলেছে স্প্যানিয়ার্ডরা।

ম্যাচের সপ্তদশ মিনিটে জার্মানির হয়ে গোলের খাতা খোলেন মোরাতা। ফাবিয়ান রুইসের কর্নার থেকে হেডে গোল করেন জুভেন্টাসের এই স্ট্রাইকার।

তোরেস তার গোলের খাতা খোলেন ম্যাচের ৩৩ মিনিটে। দানি ওলমোর হেড ক্রসবারে লাগলে ফাঁকায় বল পেয়ে তাকে গোলে পরিণত করেন ম্যানচেস্টার সিটির এই ফরোয়ার্ড। এর ৫ মিনিট পর স্কোরলাইন ৩-০-তে নিয়ে যান রদ্রি।

স্পেনের একের পর এক আক্রমণ ঠেকাতেই ব্যতিব্যস্ত ছিল জার্মানি। শেষ তিনটি গোল হজম করে তারা ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে। বিরতির পর মাঠে ফিরে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে নেন তোরেস। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে গয়ার পাস থেকে দ্বিতীয় গোল করেন তিনি। আর ৭১ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে রুইসের পাস থেকে বল পেয়ে করেন তৃতীয় গোলটি। আর ম্যাচের ৮৯ মিনিটে জার্মানির জালে সর্বশেষ পেরেকটি ঠোকেন ওয়ারসাবাল।

পিএ

 

আরও পড়ুন

আরও