নেইমারের হ্যাটট্রিক, পিছিয়ে পড়েও জিতল ব্রাজিল
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০ | ১৬ কার্তিক ১৪২৭

নেইমারের হ্যাটট্রিক, পিছিয়ে পড়েও জিতল ব্রাজিল

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৩০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২০

নেইমারের হ্যাটট্রিক, পিছিয়ে পড়েও জিতল ব্রাজিল
ব্রাজিল এবারের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বটা শুরু করেছে বলিভিয়ার বিপক্ষে ৬-১ গোলের জয় দিয়ে। আত্মবিশ্বাসে টগবগ করে ফুটতে থাকা সেই ব্রাজিল কী দ্বিতীয় ম্যাচেই হার মানতে পারে? হারেওনি ব্রাজিল। বরং দুদুবার পিছিয়ে পড়েও টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। আজ বুধবার বাংলাদেশ সময় ভোরে অনুষ্ঠিত ম্যাচে পেরুকে হারিয়েছে ৪-২ গোলে।

পেরুর বিপক্ষে দারুণ এই জয়ের নায়ক নেইমার। বলিভিয়ার বিপক্ষে গোল বন্যার প্রথম ম্যাচটিতে পিএসজি তারকা ছিলেন গোলশূন্য। পুরো ম্যাচে অবিশ্বাস্য খেলেও সেদিন গোলের দেখা পাননি নেইমার। পেরুর বিপক্ষে সেই আক্ষেপ দূর করে করে ফেললেন হ্যাটট্রিক। যে হ্যাটট্রিক পিছিয়ে পড়া ব্রাজিলকে শুধু রোমাঞ্চকর জয়ই এনে দেয়নি, নেইমার নিজেও গড়েছেন একটা কীর্তি। এই হ্যাটট্রিকের সৌজন্যে স্বদেশি কিংবদন্তি রোনাল্ডো রোজারিওকে পেছনে ফেলে নেইমার উঠে গেছেন ব্রাজিলের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে।

পেরুর ঘরের মাঠে ম্যাচটি শুরু হওয়ার আগেও ৬১ গোল নিয়ে নেইমার ছিলেন দেশ ব্রাজিলের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকার ৩ নম্বরে। ৬২ গোল নিয়ে দুই নম্বরে ছিলেন রোনাল্ডো রোজারিও। রোনাল্ডোকে পেছনে ফেলে ৬৪ গোল নিয়ে নেইমার এখন দুইয়ে। তার উপরে কেবলই কিংবদন্তি পেলে। ব্রাজিলের বিখ্যাত হলুদ জার্সি গায়ে যিনি করেছেন ৭৭ গোল।

কিংবদন্তি রোনাল্ডোর রেকর্ড ভাঙার বাড়তি আনন্দ তো আছেই। তবে হ্যাটট্রিক করে পিছিয়ে পড়া দলকে জয় এনে দেওয়াতেও বেশি খুশি নেইমার। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে জয় বলে কথা। ২০১৯ সালে এই পেরুকে হারিয়েই কোপা আমেরিকার শিরোপা জেতেন নেইমাররা। সেদিনও দলের জয়ে বড় নায়ক ছিলেন নেইমার। আজও তার পুনরাবৃত্তিই ঘটালেন পিএসজি তারকা।

নিজেদের মাঠে পেরু শুরুটা করেছিল দারুণ। ম্যাচের ৬ মিনিটের মাথায় এগিয়েও যায় স্বাগতিকরা। দর্শনীয় এক গোল করে পেরুকে ১-০ গোলের লিড এনে দেন আন্দ্রে কোরিলো। তবে ২২ মিনিটের বেশি লিডটা ধরে রাখতে পারেনি পেরু। ম্যাচের ২৮ মিনিটেই ব্রাজিলকে সমতায় ফেরান দুর্দান্ত খেলতে থাকা নেইমার। নিজের এবং দলের প্রথম গোলটা তিনি করেন পেনাল্টি থেকে। যে পেনাল্টিটি তিনি নিজেই আদায় করেছিলেন।

এরপর ৫৯ মিনিটে আবারও এগিয়ে যায় পেরু। স্বাগতিকদের হয়ে স্কোর ২-১ করেন রেনাতো তাপিয়া। ৬৪ মিনিটেই পেরুর এই গোলটি শোধ করে ফেলে ব্রাজিল। এবার ব্রাজিলকে সমতায় ফেরান রিচার্লিসন। ম্যাচের পরের গল্পটুকু শুধুই নেইমারকে ঘিরে। দলকে জেতাতে পরের দুটো গোলই করেন তিনি। ৮৩ মিনিটে ব্রাজিলকে আবারও পেনাল্টি পাইয়ে দেন নেইমার। তা থেকে গোল করে দলকে প্রথম বারের মতো এগিয়েও দেন তিনি (৩-২)।

তার এই গোলেই জয় দেখছিল ব্রাজিল। কিন্তু পুরো ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা নেইমারের মনে কী এক গোলের জন্য হ্যাটট্রিকের আফসোস থাকলে মানায়। ভাগ্যদেবী তাই নেইমারকে দিয়ে পূর্ণ করালেন হ্যাটট্রিক। ইনজুর সময়ের চতুর্থ মিনিটে দারুণ এক গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন তিনি। ব্রাজিল এগিয়ে যায় ৪-২ গোলে। শেষ পর্যন্ত সেই ব্যবধানেই জিতেছে সেলেসাওরা।

টানা দুই পয়েন্ট তালিকার এক নম্বরে নেইমারদের ব্রাজিল। টানা দুই ম্যাচে জিতেছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনাও। তবে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় আর্জেন্টিনাকে থাকতে হচ্ছে দুই নম্বরে। ব্রাজিলের মতো আজ জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনাও। তবে ব্রাজিলের মতো দাপুটে জয় নয়, আর্জেন্টিনার জয়টি এসেছে কষ্টে। লাপাজের ৩৬৫০ মিটার উচ্চতায় গিয়ে মেসির দল বলিভিয়াকে হারিয়েছে ২-১ গোলে। আর্জেন্টিনার হয়ে গোল দুটো করেছেন লাওতারো মার্টিনেজ ও জোঢাকিন কোরেয়া।

দিনের অন্য ম্যাচগুলোতে উরুগুয়েকে ৪-২ গোলে হারিয়েছে ইকুয়েডর। ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে প্যারাগুয়ে পেয়েছে ১-০ গোলের জয়। চিলি-কলম্বিয়ার ম্যাচটি শেষ হয়েছে ২-২ গোলের ড্র এঁকে।

কেআর

 

আরও পড়ুন

আরও