প্রেম শুধু অন্ধ না ফোকলাও করে, সব দাঁত তুলে প্রেয়সীকে উপহার!
Back to Top

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

প্রেম শুধু অন্ধ না ফোকলাও করে, সব দাঁত তুলে প্রেয়সীকে উপহার!

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:২৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০২১

প্রেম শুধু অন্ধ না ফোকলাও করে, সব দাঁত তুলে প্রেয়সীকে  উপহার!
প্রেয়সীকে তুষ্ট করতে কত কিছুই না করে প্রেমিক। এসব নিয়ে সত্যি ঘটনা আর মিথের ছড়াছড়ি চারদিকে। ফলে এসব নিয়ে অবাক হওয়ার তেমন কিছু নেই, কিন্তু তাই বলে নিজের সব দাঁত তুলে ফেলে প্রেমিকার জন্য গলার মালা গড়িয়ে দেয়ার খবরে হোঁচট কিন্তু খেতেই হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে, মিসরের এক যুবক নিজের সব দাঁত তুলে ধাতব সুতায় মালা গেঁথেছেন প্রেয়সীর জন্য। ওই যুবকের ছবিসহ দন্তমাল্যের ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে বাংলাদেশের অনেকেই গেয়েছেন ‘প্রেমের জয়গান’।

তবে ফেসবুকে গুজবের ছড়াছড়ি থাকায় খুঁজে দেখেছে প্রেমের জন্য এমন নিবেদনের পেছনের খবর। আর তাতে বেরিয়ে এসেছে একটি ব্যঙ্গাত্মক পোস্ট কী করে আরব অঞ্চলে ভাইরাল হওয়ার পর বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে বাংলাদেশের ফেসবুকারদের মাঝেও।

গুগল লেন্সসহ আরও কিছু প্রযুক্তিগত সহায়তা নিয়ে দেখা গিয়েছে দন্তমাল্যের সঙ্গে ফোকলা দাঁতের যুবকের ছবিটি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক প্রোফাইলে প্রথম পোস্ট করেন মিসরের তরুণ অভিনেতা মোস্তফা সলিমান এল সায়েদ। মিসরের তরুণ অভিনেতা মোস্তফা সলিমান এল সায়েদ টুইটার ও ফেসবুকে এই পোস্টটি করেন ওই পোস্টে ছিল পাশাপাশি দুটি ছবি। একটিতে দাঁতের তৈরি মালা, অন্যটিতে হাসিমুখে দন্তহীন এক তরুণ।

মোস্তফা সলিমান পোস্টে আরবি ভাষায় একটি বার্তাও দেন। যার বাংলা অর্থ, ‘সিরিয়াসলি, ভালোবাসার সবচেয়ে সুন্দর অর্থ যা আমি আমার জীবনে দেখেছি, তা হলো আপনি আপনার সমস্ত দাঁত বের করে আপনার ভালোবাসার মানুষকে দিয়ে দিন’।

নিজের টুইটার ও ইনস্টাগ্রামেও পোস্টটি করেন মোস্তফা সলিমান এল সায়েদ। ব্যস, সেখান থেকেই শুরু। নেটিজেনরা হুমড়ি খেয়ে পড়েন তার পোস্টে। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ২ হাজার ৪০০ ফেসবুক ইউজার তার পোস্টে রিঅ্যাক্ট করেছেন। যার মধ্যে ২ হাজার ২০০ ব্যবহারকারী ‘হাহা’ রিঅ্যাক্ট দেন, আর কমেন্ট পড়েছে ৭২৮টি। পোস্ট শেয়ার হয়েছে ৫৪৪ বার।

ভালোবাসার এমন ‘নিদারুণ নিদর্শনের’ মতো সিরিয়াস পোস্টে হাসির রিঅ্যাক্ট সন্দেহ জাগায়। তবে আরবি ভাষার কমেন্টগুলো অনুবাদ করে বোঝা যায়, সেটি ছিল মোস্তফা সলিমানের একটি ‘ফান পোস্ট’।

সেখানে মজা করে ইব্রাহিম মাগদি নামের একজন লিখেছেন, ‘এত প্রেম কই থাকে?’ উত্তরে মোস্তফা সলিমান বলেন, ‘তার ঘাড়ে।’ পরে আবার লিখেছেন, ‘ঈশ্বর, আমায় তুমি বিশ্বাস করো না।’

পোস্টটির কমেন্ট অংশে মোস্তফা সলিমানের বন্ধুবান্ধব, পরিচিতজনেরা নানান হাস্যরসাত্মক মন্তব্য করেছেন। এসব মন্তব্য এবং মোস্তফা সলিমান এল সায়েদের বিভিন্ন সময়ের ছবি মনোযোগ দিয়ে দেখা যায়, দন্তহীন ছবিটিও তার। মোস্তফা সলিমান অ্যাপ দিয়ে দাঁত সরিয়ে নিজের ছবিই বসিয়ে দিয়েছেন ওখানে।

আর দন্তমাল্যের কথা ভাবছেন তো? সেটি আসলে পিনটারেস্টে এক একটি জুয়েলারি শিল্পীর পণ্যের বিজ্ঞাপন থেকে নেয়া।

পিনটারেস্ট হলো ছবি শেয়ারিং এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মতো একটি সেবা। আলোচিত মালাটি ছাড়াও আরও বেশ কিছু দন্তমাল্যের ছবি রয়েছে ওই প্রোফাইল অ্যাকাউন্টে। মোস্তফা সলিমানের ‘ফান পোস্ট’ যেভাবে ‘সত্যি’ হয়ে গেল

মিসরের আলেক্সান্দ্রিয়ার মোস্তফা সলিমান এল সায়েদ এর আগেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন ফান পোস্ট ‘বিশ্বাসযোগ্য’ ভঙ্গিতে উপস্থাপনের কারণে আলোচিত হয়েছেন। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি।

ইসি
 

আরও পড়ুন

আরও