বিয়ের ১৯ বছর পর স্বামী জানলেন তার স্ত্রী পুরুষ!
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১ | ৪ মাঘ ১৪২৭

বিয়ের ১৯ বছর পর স্বামী জানলেন তার স্ত্রী পুরুষ!

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:৩৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৫, ২০২১

বিয়ের ১৯ বছর পর স্বামী জানলেন তার স্ত্রী পুরুষ!
প্রথম দেখাতেই একে অন্যের প্রেমে পরেছিলেন জেন-মনিকা। এর পর সময় গড়িয়ে চলে দু’জনার। তাদের প্রেম গড়ায় মধুর সম্পর্কে। বিয়েও করেন তারা। দুজন দুজনার হয়ে কাটিয়ে দিয়েছেন ১৯টা বছর। এখন জেনের বয়স ৬৪।

তবে এই বয়সে জেন জানতে পারেন, জীবনের এতোটা সময় তিনি যার সাথে সময় কাটিয়েছেন তিনি একসময় পুরুষ ছিলেন। এই খবর জানার পরই স্ত্রী মনিকার সঙ্গে বিচ্ছেদ করেন জেন।

ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এমন আশ্চর্য রকমের গল্প উঠে এসেছে। জেন ও মনিকার পরিচয় হয় ১৯৯২ সালে। পরিচয় থেকে পরিণয় গড়াতে সময় লাগেনি তাদের। পারিবারিক-আইনি সমস্ত বাধা অস্বীকার করে মনিকাকে বিয়ে করেন তিনি, নিয়ে আসেন বেলজিয়ামে।

বিয়ের পর দু’জনেই সিদ্ধান্ত নেন-সন্তান নেবেন না তারা। কেননা এর আগের সংসারে ২ সন্তান ছিল জেনের। ১৯ বছরের মিষ্টি-মধুর সংসার কেটে গেছে দু’জনের।

জেন বলেন, তার স্ত্রী ‘অসাধারণ সুন্দরী ও নারীত্বপূর্ণ’। কিন্তু স্বপ্নেও এমনটা কল্পনা করেননি তিনি।

সম্প্রতি মনিকার জন্মভূমি ইন্দোনেশিয়ায় বেড়াতে যান তারা। সেখানে মনিকার এক আত্মীয়ের বাড়ি গিয়ে পুরোনো ছবি ঘাটতে ঘাটতে হঠাৎ কঠিন ও বাস্তব সত্য চলে আসে সামনে। মনিকার জন্ম একজন ছেলে হিসেবে। পরবর্তী সময়ে সেক্স-চেঞ্জ অপারেশনের মাধ্যমে নিজের লিঙ্গ পরিবর্তন করিয়ে নেন তিনি।

এই তথ্য জানবার পরই মনিকার সঙ্গে সব সম্পর্ক ছেদের সিদ্ধান্ত নেন জেন। তবে এখনই তারা আলাদা হচ্ছেন না। আদালতের রায় পর্যন্ত তাদের একসঙ্গে থাকতে হবে তাদের।

ওএস/ইসি

 

আরও পড়ুন

আরও