অফিসে প্রতিদিন ৩০ মিনিট ঘুম বাধ্যতামূলক, অর্থও পাবেন কর্মীরা!
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ২৫ মে ২০২২ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

>

অফিসে প্রতিদিন ৩০ মিনিট ঘুম বাধ্যতামূলক, অর্থও পাবেন কর্মীরা!

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:২০ পূর্বাহ্ণ, মে ০৬, ২০২২

অফিসে প্রতিদিন ৩০ মিনিট ঘুম বাধ্যতামূলক, অর্থও পাবেন কর্মীরা!
অফিসে টানা কাজ করলে ক্লান্তি চলে আসে। এ অবস্থায় অফিসে যদি কাজের ফাঁকে একটু ঘুমিয়ে নেওয়া যেত তাহলে মন্দ হতো না!

কিন্তু, এমন সুযোগ কে দেবে? অফিসে কাজের জন্য বেতন দেওয়া হয়, ঘুমের জন্য নয়। তবে, অবাক করা বিষয় হলেও সত্য অফিসে ঘুমের জন্য সময় দেওয়া হচ্ছে, দেওয়া হবে বেতনও। এমনটাই জানিয়েছে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর একটি বেসরকারি কোম্পানি।

ব্যাঙ্গালুরুর এ অফিসে প্রতিদিন ৩০ মিনিট ঘুম বাধ্যতামূলক করা হয়েছে সব কর্মীর জন্য। এ বিষয়ে প্রত্যেক কর্মীকে ই-মেইলের মাধ্যমে নোটিশ জারি করা হয়েছে। সবাইকে আধঘণ্টা অফিসে ঘুমাতেই হবে। সে ঘুমানোর জন্য টাকাও পাবেন কর্মীরা।

‘ওয়েকফিট সলিউশন’-এর কো-ফাউন্ডার চৈতন্য রামালিঙ্গেগোয়া অফিসিয়ালি ই-মেইলের মাধ্যমে এ নোটিশ জারি করেছেন তাঁর অফিসে। ই-মেইলে মহাকাশ গবেষণা নাসা ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার উদ্ধৃতি দিয়ে চৈতন্য রামালিঙ্গেগোয়া বলেন, ঘুম কর্মক্ষমতা উন্নত করে ও শারীরিক দুর্বলতা দূর করে। খবর টাইমস নাউ ও নিউজ১৮-এর।

এ সংক্রান্ত একটি টুইটও করা হয়েছে ওয়েকফিট’র অফিসিয়াল পেজ থেকে। সেখানে প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত সব কর্মীকে ঘুমানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ সময় কোনো কাজ করা যাবে না।

ওয়েকফিট আরও জানিয়েছে, কর্মীদের আরামদায়ক ঘুমের পরিবেশ নিশ্চিত করতে অফিসের ভেতরেই ‘কোজি ন্যাপ পড’ ও ‘নীরব কক্ষ’ তৈরি করবে কর্তৃপক্ষ।

ই-মেইলে চৈতন্য লেখেন, ‘আমরা দীর্ঘ ছয় বছর ধরে মানুষের ঘুমের সামগ্রী বিক্রি করে ব্যবসা করছি। অথচ নিজেরাই ঘুমের সঙ্গে সঠিক বিচার করতে পারছি না। সবার একটু বিশ্রাম দরকার। সে কথা ভেবেই আফটারনুন ন্যাপ চালু করার কথা অনেকদিন ধরেই চলছিল। এবার বিষয়টাকে সিরিয়াসলি নিতে হবে। আজ থেকেই কম করে ৩০ মিনিটের ঘুম বা ন্যাপ নিতে হবে সবাইকে। কাজের মধ্যে একটু ঘুম দরকার। এতে শরীর মন ভালো থাকবে। কাজ ভালো হবে।’

বালিশ, মেট্রেস, এ ধরনের জিনিসই পাওয়া যায় ওয়েকফিটে। সবকিছু তৈরি হয় ভালো ঘুমের কথা মাথায় রেখে। এবার তারা নিজেদের অফিসেই চালু করল এ নিয়ম।

ওএস/এএইচএ
 

আরও পড়ুন

আরও
               
         
close