গলায় মাংস আটকে মৃত্যু, করোনা সন্দেহে কাছে আসেনি চিকিৎসক
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গলায় মাংস আটকে মৃত্যু, করোনা সন্দেহে কাছে আসেনি চিকিৎসক

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ৩:৫৩ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২০

গলায় মাংস আটকে মৃত্যু, করোনা সন্দেহে কাছে আসেনি চিকিৎসক
গলায় গরুর মাংস আটকে মানিকগঞ্জে চঞ্চল হোসেন (২০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। নিহত চঞ্চল সদর উপজেলার উচুটিয়া এলাকার মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে।

নিহতের বোন সুমাইয়া আক্তার জানান, তার ভাই চঞ্চল ঢাকার একটি প্রেসে চাকরি করেন। বুধবার সকালে ঢাকা থেকে বাড়ি আসেন তিনি। বাড়িতে এসে তাড়াহুড়ো করে ভাত ও গরুর মাংস খাওয়ার সময় গলায় এক টুকরো মাংস আটকে যায়। পরে তাকে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হলে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে তার পাশে কোন চিকিৎসক আসেননি। কিছুক্ষণ পর জরুরি বিভাগ থেকে জানানো হয় চঞ্চল মারা গেছে।

চঞ্চলের মা শিখা বেগম জানান, দুই মেয়ে আর ছেলে চঞ্চলকে নিয়ে তার সংসার। স্বামী মারা গেছে দীর্ঘদিন। পারিবারিক অভাবের কারণে ছেলেকে চাকরিতে দিয়েছেন ঢাকার একটি প্রেসে। গতকাল মুঠোফোনে ছেলে গরুর মাংস রান্না করতে বলেন তাকে। পরে আজ সকালে গরুর মাংস দিয়ে ভাত খাওয়ার সময় গলায় আটকে যায় তার। এরপর হাসপাতালে নিয়ে আসলে বিনা চিকিৎসায় তার ছেলের মৃত্যু হয়। তিনি এই ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত বিচারের দাবি জানান।

মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ মাহফুজ জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। জরুরি বিভাগে আনার পর ইসিজি করে বিষয়টি নিশ্চিত করে তাদেরকে জানানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আরশ্বাদ উল্লাহ’র মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এএল/পিএসএস

 

: আরও পড়ুন

আরও