স্বামীর আসনে নৌকা পেতে মরিয়া স্ত্রী-ছেলে
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২ | ১০ মাঘ ১৪২৮

স্বামীর আসনে নৌকা পেতে মরিয়া স্ত্রী-ছেলে

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ৫:৫১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৩, ২০২১

স্বামীর আসনে নৌকা পেতে মরিয়া স্ত্রী-ছেলে
টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের উপ-নির্বাচনে একাধিক প্রার্থী আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী। ইতিমধ্যে এই আসনের সদ্য প্রয়াত সংসদ সদস্যের স্ত্রী ও ছেলে-সহ নয়জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

দলীয় সিদ্ধান্তে এ নির্বাচনেও অংশগ্রহণ করছে না বিএনপি।

গত ১৬ নভেম্বর এই আসনের সংসদ সদস্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। পরে এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। 

৩০ নভেম্বর এই আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১৫ ডিসেম্বর ও মনোনয়নপত্র বাছাই ২০ ডিসেম্বর আর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৭ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। ২৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে এ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হবে। 

আগামী ১৬ জানুয়ারি আসনটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

গত ২৯ নভেম্বর থেকে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু হয়ে ১ ডিসেম্বর শেষ হয়েছে কার্যক্রম। 

মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন- প্রয়াত এমপির স্ত্রী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঝর্ণা হোসেন, তার ছেলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক তাহরীম হোসেন সীমান্ত, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও এফবিসিসিআই’র পরিচালক খান আহমেদ শুভ, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মেজর (অব.) খন্দকার আব্দুল হাফিজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল ও তৌফিকুর রহমান তালুকদার রাজিব, মির্জাপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের সভাপতি খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল এবং মধুমতি ব্যাংকের পরিচালক ও ইবিএস গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক রাফিউর রহমান খান ইউসুফজাই। 

এসবি

 

আরও পড়ুন

আরও