উইন্ডিজ দলে গেইল-অ্যাডওয়ার্ডস চমক
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ১০ বৈশাখ ১৪২৮

উইন্ডিজ দলে গেইল-অ্যাডওয়ার্ডস চমক

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১

উইন্ডিজ দলে গেইল-অ্যাডওয়ার্ডস চমক
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজের জন্য ঘোষিত আলাদা আলাদা সেই দল দুটোতেই চমকে ভরা। সব সিনিয়র খেলোয়াড়েরাই ফিরেছেন দলে। তবে সবচেয়ে বড় চমক গ্রিস গেইল ও ফিদেল অ্যাডওয়ার্ডসের দলে ফেরা। এই দুজনই ফিরেছেন শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য ঘোষিত ১৪ সদস্যের টি-টোয়েন্টি দলে। গেইল জাতীয় দলে ফিরলেন দুই বছর পর। আর অ্যাডওয়ার্ডস? তিনি ফিরলেন দীর্ঘ ৯ বছর পর! গেইল সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলেছেন ২০১৯ সালের ১৪ আগস্ট। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর নিজেদের ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে। সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন তারও ৫ মাস আগে, ২০১৯ সালেরই ৮ মার্চ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

এরপর থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে গেইল। বিভিন্ন দেশের হয়ে ফ্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলে গেলেও ফর্ম আর আগের মতো নেই। বয়স হয়ে গেছে ৪১ বছর ১৫৯ দিন। শরীরটাও ভারি হয়ে গেছে। পা-শরীর ঠিক মতো চলে না। ফলে ধরেই নেওয়া হয়েছিল ব্যাটিং দানব গেইলের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার হয়তো শেষ। তবে গেইল নিজে আশাবাদী ছিলেন। তিনি এমনটাও বলেছেন, ৪৫ বছর বয়স পর্যন্ত খেলাটা চালিয়ে যেতে পারবেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত গেইলের আশাবাদই সত্য হলো। গেইল ঠিকই ফিরলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে। তবে ওয়ানডে সিরিজের জন্য ঘোষিত ১৩ সদস্যের দলে ঠাই হয়নি তার। শুধু ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে জায়গা হয়েছে তার। জাতীয় দলে ফিরছেন, এটা আগেই বুঝে গিয়েছিলেন গেইল। তাই তো পিসিএল শেষ না করেই গত সপ্তাহে পাকিস্তান ছেড়ে গেইল পাড়ি জমান ক্যারিবীয়ানে।
৪১ বছর ১৫৯ দিন বয়সে জাতীয় দলে ফেরাটা বড় চমকই। তবে তার চেয়েও বড় চমক ফিদেল অ্যাডওয়ার্ডসের ফেরাটা। ডান হাতি এই ফাস্ট বোলার সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন সেই ২০১২ সালে। মানে ৯ বছর আগে। এরপর নদীর পানি গড়িয়েছে অনেক। অ্যাডওয়ার্ডসের ক্রিকেট ক্যারিয়ার, এমনকি জীবনের পথটাই পাল্টে যায়। ২০১৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছেড়ে পাড়ি জমান ইংল্যান্ডের হ্যাম্পশায়ারে। করে বসেন কলপাক চুক্তি। কিন্তু সম্প্রতি যুক্তরাজ্য ইউরোপিয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার পর অ্যাডওয়ার্ডসের আবার ইচ্ছা জাগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার। নিজের এই ইচ্ছার কথাটা তিনি জানান ক্যারিবীয় অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড ও কোচ ফিল সিমন্সকে।

ইচ্ছা প্রকাশের পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটে অ্যাডওয়ার্ডসকে পরীক্ষাও দিতে হয়েছে। সেখানে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেই নজর কেড়েছেন নির্বাচকদের। তবে গেইলের মতো ৩৯ বছর বয়সী অ্যাডওয়ার্ডসেরও জায়গা হয়েছে শুধু টি-টোয়েন্টি দলে। ওয়ানডে দলে ফিরতে পারেননি।

গেইল-অ্যাডওয়ার্ডস ছাড়াও চমক আছে আরও। তরুণ স্পিনার আকিল হোসেন যেমন আছেন টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে. দুই দলেই। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ভালো খেলার পুরষ্কার হিসেবেই উভয় দলে জায়গা পেয়েছেন তিনি। তার সঙ্গে প্রথম বারের মতো জাতীয় দলের ডাক পেয়েছেন গায়ানার ২১ বছর বয়সী স্পিনার কেভিন সিনক্লেয়ার। তারা দুজনেই আছেন টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে দলে। ক্যারিবীয় টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডারও ফিরেছেন দুই দলেই।

নানা কারণে বাংলাদেশ সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিনিয়র ক্রিকেটাররা আসেননি। দবে অনভিজ্ঞ দল নিয়েই বাংলাদেশ থেকে টেস্ট সিরিজ জিতে ফিরেছে তারা। যদিও ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশের লজ্জাই পেতে হয় তাদের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যাতে তেমন কিঠু না ঘটে, ক্যারিবীয়রা তাই পূর্ণ শক্তির দলই গড়েছেন। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডের নিয়মিত অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড, ডোয়া্ইন ব্রাভো, আন্দ্রে ফ্লেচার, নিকোলাস পুরান, ফাবিয়ান অ্যালেন, হেসন হোল্ডার-সিনিয়দের প্রায় সবাই ফিরেছেন। শুধু অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল ফিরতে পারেননি করোনার কারণে।

৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজটি শুরু হবে ৩ মার্চ, শেষ হবে ৮ মার্চ। ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি হবে ১০-১৪ মার্চ। এরপর ২১ মার্চ থেকে শুরু হবে ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। চলবে ২ এপ্রিল পর্যন্ত। তবে টেস্ট সিরিজের জন্য এখনো দল ঘোষণা করা হয়নি।

অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের নেতৃত্বে সব সিনিয়াররাই ফিরেছেন বটে। তবে ক্রিকেটপ্রেমীদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবেন গেইল এবং অ্যাডওয়ার্ডসই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে সরে যাওয়ার আগে অ্যাডওয়ার্ডস ক্যারিবীয়দের হয়ে ৫৫টি টেস্ট, ৫০টি ওয়ানডে ও ২০টি টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন।

১৪ সদস্যের টি-টোয়েন্টি দল : কাইরন পোলার্ড (অধিনায়ক), লেন্ডল সিমন্স, নিকোলাস পুরান, আন্দ্রে ফ্লেচার, ডোয়াইন ব্রাভো, ফাবিয়ান অ্যালেন, ক্রিস গেইল, হেসন হোল্ডার, ফিদেল অ্যাডওয়ার্ডস, এভিন লুইস, রভমান পাওয়েল, আকিল হোসেন, ওবেদ ম্যাকয় ও কেভিন সিনক্লেয়ার।

১৩ সদস্যের ওয়ানডে দল : কাইরন পোলার্ড (অধিনায়ক), শাই হোপ, ডারেন ব্রাভো, ফাবিয়ান অ্যালেন, এভিন লুইস, হেসন হোল্ডার, নিকোলাস পুরান, কাইল মেয়ার্স, জেসন মোহাম্মেদ, আলজারি জোসেফ, আকিল হোসেন, রোমারিও শেফার্ড ও কেভিন সিনক্লেয়ার।

কেআর

 

আরও পড়ুন

আরও