খুলনাকেও হারিয়ে দিল রাজশাহী
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১ | ১৪ মাঘ ১৪২৭

খুলনাকেও হারিয়ে দিল রাজশাহী

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:১৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

খুলনাকেও হারিয়ে দিল রাজশাহী
টি-টোয়েন্টিকে ফেবারিট বলে কিছু নেই। দিন যাদের, ম্যাচ তাদের। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে এই কথাটাই যেন প্রমাণ করে চলেছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী। কাগজে-কলমের হিসেবে টুর্নামেন্টের ৫ দলের মধ্যে রাজশাহীই সবচেয়ে দুর্বল। কিন্তু মাঠের লড়াইয়ে সেই রাজশাহীই যেন সবচেয়ে ফেবারিট। ছুটছে টগবগে ঘোড়া হয়ে। জিতল টানা দুই ম্যাচেই।

প্রথম ম্যাচে রাজশাহী হারিয়েছে তুলনামূলকভাবে শক্তিশালী বেক্সিমকো ঢাকাকে। আজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে ফেবারিট জেমকন খুলনাকেও হারিয়ে দিয়েছে রাজশাহী। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসানদের খুলনাকে আবার বেশ দাপটের সঙ্গেই হারিয়েছে রাজশাহী। ১৬ বল বাকি থাকতেই তুলে নিয়েছে ৬ উইকেটের জয়।

প্রথমে ব্যাট করে খুলনা গড়েছিল ৬ উইকেটে ১৪৬ রানের পুঁজি। অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তির অশান্ত ব্যাটিংয়ে রাজশাহী ১৪৭ রানের জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে গেছে ১৭.২ ওভারেই। হারিয়েছিল মাত্র ৪টি উইকেট। দলকে জয় এনে দেওয়ার পথে সবচেয়ে বড় অবদান অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর। ওপেনিংয়ে নেমে তিনি ৩৪ বলে করেছেন ৫৫ রান। ইনিংসটিতে ৬টি চারের সঙ্গে ৩টি ছক্কা মেরেছেন তিনি। ম্যাচ জয়ী ইনিংসটি তাকে এনে দিয়েছে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার।

অধিনায়ক নাজমুল ছাড়াও দলকে জেতাতে ব্যাট হাতে অবদান রেখেছেন রনি তালুকদার, মোহাম্মদ আশরাফুল ও ফজলে রাব্বিরা। রনি তালুকদার ২০ বলে করেছেন ২৬ রান। মোহাম্মদ আশরাফুল ২২ বলে ২৫ রান করে ফিরেছেন দলকে জিতিয়ে। ফজলে রাব্বি ১৬ বলে করেছেন ২৪ রান।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা খুলনাকে ডুবিয়েছে টপ অর্ডার। রাজশাহীর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে মাত্র ৫১ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকে খুলনা। ব্যর্থতার সোলকলা পূর্ণ করেেএকে একে বিদায় নেন টপ অর্ডারের ৫ ব্যাটসম্যান। খুলনার টপ অর্ডার ধ্বংসযজ্ঞের শুরুটা ইমরুল কায়েসকে দিয়ে। ম্যাচের তৃতীয় বলেই তিনি আউট হন ব্যক্তিগত শূন্য রানে। এরপর এক এক করে প্যাভিলিয়ে ফিরে যান সাকিব আল হাসান (১২), এনামুল হক বিজয় (২৬), অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ (৭) ও জহুরুল ইসলাম (১)। এরপরও খুলনা ১৪৬ রানের পুঁজি পায় সেই আরিফুল হক, শামীম হোসেন ও শহিদুল ইসলামের ব্যাটে চড়ে।

প্রথম ম্যাচে বরিশালের বিপক্ষে শেষ ওভারে ৪ ছক্কা মেরে খুলনাকে অবিশ্বাস্য জয় উপহার দেন আরিফুল। আজও তিনি খেলেছেন ৩১ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রানের ইনিংস। যে ইনিংসটিতে ৩টি ছক্কা ও ২টি চার মেরেছেন। এছাড়া শামীম হোসেন খেলেছেন ২৫ বলে ৩৫ রানের ইনিংস। শেষ দিকে নামা শহিদুল ১২ বলে করেছেন অপরাজিত ১৭ রান। কিন্তু আরিফুল, শামীম, শহিদুলদের শেষের সেই লড়াই শেষ পর্যন্ত বিফলেই গেছে। টানা দুই ম্যাচে জিতে পয়েন্ট তালিকায় এককই ভাবেই শীর্ষে কাগজে-কলমের হিসেবে সবচেয়ে দুর্বল রাজশাহী।

কেআর

 

আরও পড়ুন

আরও