কুমিল্লার নিমসার বাজারে ৪০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০ | ১৮ চৈত্র ১৪২৬

কুমিল্লার নিমসার বাজারে ৪০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

কুমিল্লা প্রতিনিধি: ৮:০৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯

কুমিল্লার নিমসার বাজারে ৪০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নিমসার বাজারের ৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই বাজারের সীমানা ছাড়িয়ে স্থানীয় জুনাব আলী কলেজ গেটের সামনে গড়ে উঠা এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালায় বুড়িচং উপজেলা প্রশাসন।

সকাল ১০টায় বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরুল হাসান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাহমিদা আক্তারের নেতৃত্বে সড়ক-জনপদ বিভাগের সহযোগিতায় এই উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়।

অভিযান চলে দুপুর ১টা পর্যন্ত। তিন ঘন্টাব্যাপী অভিযানে ছোট-বড় প্রায় ৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

জানা গেছে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার নিমসারে সওজ এর জায়গায় সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে বছরের পর বছর হাট বাজার পরিচালিত হয়ে আসছে। দেশের অন্যতম বৃহৎ সবজির হাট নিমসারে ইজারার মাধ্যমে বাজার পরিচালনার জন্য নির্দিষ্ট করে জায়গা বরাদ্দ থাকার পরও একটি চক্র বাজার সংলগ্ন ঐতিহ্যবাহী জুনাব আলী কলেজ গেইটের সামনের ও আশপাশের অংশ দখল করে অবৈধভাবে স্থাপনা গড়ে তুলে হাট-বাজার সৃষ্টি করেছে।

এর প্রেক্ষিতে নিমসার জুনাব আলী কলেজের শিক্ষার্থী মো. আশরাফুল আলম গত ২৩ সেপ্টেম্বর অবৈধ বাজারটি অপসারণের জন্য হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করে। সে আলোকে গত ২৪ নভেম্বর হাইকোর্ট কলেজের সামনে থেকে আদেশ প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে বিধিসম্মতভাবে উচ্ছেদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ প্রদান করেন। সে নির্দেশনা বাস্তবায়নে বৃহস্পতিবার চালানো হয় উচ্ছেদ অভিযান।

বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরুল হাসান বলেন, বাজারের জন্য নির্ধারিত জায়গা ছাড়িয়ে নিমসার জুনাব আলী কলেজ সংলগ্ন সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের ভূমিতে অবৈধ দোকানঘর ও স্থাপনা উচ্ছেদে মহামান্য হাইকোর্টের নোটিশ ছিল। নোটিশের নিদের্শনা বাস্তবায়ন করতে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। এ সময় আড়ৎ, দোকানসহ ছোট-বড় ৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এখানে আর যেন অবৈধ স্থাপনা গড়ে না ওঠে সেজন্য উপজেলা প্রশাসন ফলোআপ করবে।

অভিযানের সময় বুড়িচং থানার ওসি অকুল চন্দ্র বিশ্বাসসহ পুলিশ ও আনসার ব্যাটালিয়নের বিপুলসংখ্যক ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।

জেডএস/পিএসএস

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও