কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে ১৪৪ ধারা
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১ | ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে ১৪৪ ধারা

নোয়াখালী প্রতিনিধি ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১

কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে ১৪৪ ধারা
নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও কোম্পানীঞ্জের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল একই স্থানে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেওয়ায় পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জিয়াউল হক মীর।

তিনি জানান, জারিকৃত আদেশটি সোমবার ভোর ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উপজেলার বসুরহাট পৌর এলাকায় কার্যকর হবে। ১৪৪ ধারা চলাকালে পৌর এলাকায় ব্যক্তি, সংগঠন, রাজনৈতিক দল, গণ জমায়েত, সভা, সমাবেশ, মিছিল, র‌্যালি, শোভাযাত্রা, যেকোনো ধরনের অনুষ্ঠান এবং রাজনৈতিক প্রচার-প্রচারণা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একই সাথে পৌর শহরে ৪ জনের বেশি লোক জমায়েত হতে পারবে না।

এদিকে, রোববার রাত ১০টার পর থেকে উপজেলার কবিরহাট-বুসরহাট, চাপরাশিরহাট-বসুরহাট ও দাগনভূঞা-বসুরহাট সড়কসহ উপজেলার বেশ কয়েকটি সড়কে গাছ ফেলে অবরোধ করে দুর্বৃত্তরা। এসময় সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। ফাঁকা হয়ে গেছে প্রতিটি সড়ক। থমথম অবস্থা বিরাজ করছে পুরো উপজেলায়।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির। মৃত্যুর পর মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারীরা সোমবার বিকেল ২টা ৩০মিনিটে বসুরহাট রূপালী চত্বরে এক শোকসভা ও মিলাদ দোয়া মাফিলের ডাক দেয়।

অপরদিকে শনিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন থেকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল একই সময় একই স্থানে প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

এর আগে শুক্রবার রাতে নিজের ফেসবুক আইডিতে লাইভে এসে বাদল সাংবাদিক মুজাক্কিরকে নিজের সমর্থক দাবি করেন। মুজাক্কির হত্যাকাণ্ডের পর উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেওয়ায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছিল।

এইচআর

 

আরও পড়ুন

আরও