বান্দরবানে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে হত্যা, রোহিঙ্গা যুবক আটক
Back to Top

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বান্দরবানে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে হত্যা, রোহিঙ্গা যুবক আটক

বান্দরবান প্রতিনিধি ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০

বান্দরবানে ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীকে হত্যা, রোহিঙ্গা যুবক আটক

বান্দরবানে ধর্ষণের পর চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার সকালে জঙ্গলে বিবস্ত্র অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে স্থানীয়রা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা যুবক রাসেল (১৮)কে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।

শুক্রবার পহেলা ফাগুনের দুপুরে গরু চড়াতে গিয়ে নিখোঁজ হয় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুনধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী রেশমা আক্তার (১০)।

আটক রাসেল রেশমাকে ধর্ষণের পর হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বদিউল আলম ও নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, সকালে স্থানীয় লোকজন শ্মশান এলাকায় জঙ্গলে রেশমা আক্তারের বিবস্ত্র লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। লাশের পাশ থেকে একটি শার্ট উদ্ধার করা হয়। এর সূত্র ধরে স্থানীয়রা রাসেল নামের এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করে পুলিশে দেয়।

পুলিশ জানিয়েছে আটক ওই রোহিঙ্গা যুবক রেশমা আক্তারকে ধর্ষণের পর গলায় পাহাড়ি লতা পেঁচিয়ে হত্যা করে।

এদিকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী ছিল মেধাবী। প্রথম শ্রেণী থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাসে তার রোল ছিল এক।

এসবি

 

: আরও পড়ুন

আরও