উদ্বোধন হলো দেশের বৃহত্তম করোনা হাসপাতালের
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

উদ্বোধন হলো দেশের বৃহত্তম করোনা হাসপাতালের

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:১১ অপরাহ্ণ, মে ১৭, ২০২০

উদ্বোধন হলো দেশের বৃহত্তম করোনা হাসপাতালের
দেশের বৃহত্তম এবং বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম করোনা হাসপাতালের উদ্বোধন হলো। রোববার (১৭ মে) দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে বসুন্ধরা কোভিড-১৯ আইসোলেশন হাসপাতালটির উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বসুন্ধরার এই আইসোলেশন হাসপাতালের দুই হাজারের বেশি বেডের মাধ্যমে এখন আমাদের কাছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার আইসোলেশন বেড প্রস্তুত আছে। এছাড়া অন্য করোনা হাসপাতাল মিলিয়ে শুধু ঢাকাতেই এখন প্রায় সাড়ে ছয় হাজার বেড প্রস্তুত।

তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্তদের ৮৫ শতাংশই ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ এবং গাজীপুর জেলার। বাকি ১৫ শতাংশ অন্য সব জেলা মিলিয়ে। করোনা পরীক্ষায় আমরা ৪০টি ল্যাব প্রস্তুত করেছি। আরও ১৫টি ল্যাব প্রস্তুতের কাজ চলছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, বসুন্ধরার এই হাসপাতালের জন্য ইতোমধ্যে পর্যাপ্ত লোকবলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রথমে ৫শ’ রোগীর জন্য, দ্বিতীয় ধাপে আরও ৫শ’ রোগীর জন্য এবং সবশেষে বাকি রোগীদের জন্য এই তিন ধাপে এখানে লোকবল পদায়ন করা হবে।

অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপ এবং ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর বলেন, সুষ্ঠুভাবে হাসপাতালটি তৈরি করার জন্য আমরা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানাই। একই সঙ্গে এটিকে হাসপাতাল করার আমাদের যে উদ্যোগ সেটি প্রধানমন্ত্রী গ্রহণ করেছেন, এজন্য তাকেও ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, করোনা মহামারির এই পরিস্থিতিতেও গণমাধ্যমকর্মীরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তারা সব সময় হোম অফিস বা আইসোলেশনে থেকে কাজ করতে পারেন না। তারা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাই গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য এই হাসপাতালে ২০০ বেড আলাদাভাবে বরাদ্দ রাখার জন্য আমি সরকারের কাছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. সাজ্জাদ হায়দার, আইসিসিবির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ওএস/পিএসএস

 

: আরও পড়ুন

আরও