আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী: আতিকুল
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী: আতিকুল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:৩৮ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০

আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী: আতিকুল
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। বুধবার দুপুর সোয়া ১২টায় গুলশানের নগর ভবনে নতুন করে দায়িত্ব গ্রহণ করেন উত্তরের মেয়র।

এ সময় প্যানেল মেয়র মো. জামাল মোস্তফা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবদুল হাই, সচিব রবীন্দ্রশ্রী বড়ুয়া ও বিভাগীয় প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

দায়িত্ব গ্রহণ শেষে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন ডিএনসিসি মেয়র। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেশ এবং পৃথিবী আজ মহাসংকট কাল পার করছে। পুরো বিশ্ব করোনা ভাইরাসের আক্রমণে বিপদগ্রস্ত। বিশ্বের প্রতিটি বড় বড় শহরের মত আমাদের প্রিয় তিলোত্তমা নগরীও স্থবির হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় সকল ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন অসংখ্য মানুষ, আমি তাদের দ্রুত রোগমুক্তি কামনা করছি। সেই সাথে যারা প্রাণ হারিয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

আতিকুল বলেন, আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী। মেয়র পদে আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব গ্রহণ করার আগে থেকেই এই মহাদুর্যোগের সময়ে আমি নগরবাসীর পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছি। সিটি কর্পোরেশনের কর্মীদের পাশে থেকে তাদেরকে অনুপ্রেরণা যোগানোর মাধ্যমে এবং ডিএনসিসির সাথে সমন্বয় করে আমি নগরবাসীর জন্য সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার চেষ্টা করেছি। আমি বিশ্বাস করি আমার ক্ষুদ্র চেষ্টা এই অস্থির সময়ে অসংখ্য মানুষের জীবনে সুখবার্তা নিয়ে আসবে। এই দুর্যোগের সময়ে নগরবাসীর জীবনযাপন স্বাভাবিক রাখতে আপনাদের সাথে নিয়ে এই প্রচেষ্টা চলমান থাকবে।

মহামারী করোনা প্রতিরোধে ডিএনসিসির চলমান পদক্ষেপসমূহ বর্ণনা করে মেয়র বলেন, ঢাকা শহরকে করোনা ভাইরাসমুক্ত রাখতে ১০টি ওয়াটার বাউজারের সাহায্যে তরল জীবাণুনাশক ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন এলাকার প্রধান সড়ক, ফুটপাত, ফুটওভারব্রিজ, কোয়ারেন্টাইন্ড এলাকা, হাসপাতাল, প্রতিষ্ঠানের সামনে, উন্মুক্তস্থানে, প্রতিটি ওয়ার্ডের অলি-গলিতে হ্যান্ড স্প্রের মাধ্যমে তরল জীবাণুনাশক স্প্রে করা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের গুরুত্বপূর্ণ কয়েক শত স্থানে পথচারীদের জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করেছে।

তিনি আরও বলেন, করোনা ভাইরাস পরীক্ষা আরো সহজ এবং হাতের নাগালে আনতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমতিক্রমে ডিএনসিসি এবং ব্র্যাক যৌথভাবে নগরীর ৮টি স্থানে করোনা স্যাম্পল কালেকশান বুথ এই সপ্তাহের মধ্যেই স্থাপন করতে যাচ্ছে। এছাড়াও ডিএনসিসির উদ্যোগে কোভিড-১৯ টেস্টিং ল্যাব স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে। এরই মধ্যে সাময়িকভাবে মহাখালী ডিএনসিসি মার্কেট করোনা হাসপাতাল ও আইসোলেশন সেন্টার নির্মাণের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এছাড়া করোনা দুর্যোগে মাঠে কাজ করা সংবাদকর্মীদের ও তাদের পরিবারের জন্য ডিএনসিসির মহাখালী কমিউনিটি সেন্টারে স্যাম্পল সংগ্রহ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মহামারী কবলিত জরুরি সেবা যেমন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটানো, মশক নিধন কাজে নিয়োজিত রয়েছেন সিটি কর্পোরেশনের অসংখ্য কর্মী। সার্বক্ষণিক মাঠে থাকা এসব কর্মীদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিতে তাদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্কসহ অন্যান্য নিরাপত্তা সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া কীভাবে ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিত করে কাজ করতে হবে সে বিষয়ে তাদেরকে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলেও জানান আতিকুল ইসলাম।

উত্তরের মেয়র বলেন, এই মহামারির সময়ে নগরবাসীর সেবায় ডিএনসিসির যে সকল কর্মী কাজ করে যাচ্ছে তাদের জন্য আমি বিনা অর্থে স্বাস্থ্যবীমার ব্যবস্থা করছি। এই দুর্যোগের সময়ে যদি কোন কর্মী করোনা রোগে আক্রান্ত হয় অথবা মারা যায় তবে তিনি এই স্বাস্থ্যবীমার আওতায় আর্থিক সহযোগিতা পাবেন। আমার পক্ষ থেকে এটি ডিএনসিসি কর্মীদের জন্য একটি ছোট উপহার।

পিএসএস

 

: আরও পড়ুন

আরও