অতীতের বীরত্বগাঁথা স্মরণ রাষ্ট্রকে এগিয়ে নেয়: তথ্যমন্ত্রী
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২ | ৮ মাঘ ১৪২৮

অতীতের বীরত্বগাঁথা স্মরণ রাষ্ট্রকে এগিয়ে নেয়: তথ্যমন্ত্রী

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:০০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২১

অতীতের বীরত্বগাঁথা স্মরণ রাষ্ট্রকে এগিয়ে নেয়: তথ্যমন্ত্রী
তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, রাষ্ট্রকে এগিয়ে নিতে অতীতের বীরত্বগাঁথা স্মরণ করতে হয়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানী শিল্পকলা একাডেমীর চিত্রশালা মিলনায়তনে ‘বাঙালির বীরত্বের চিত্রগাঁথা’ উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ তিন দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধের আলোকচিত্র খুব বেশি নেই এবং যদি সংরক্ষণ করা না হয় তাহলে সেগুলো ধীরে ধীরে হারিয়ে যাবে। এগুলোকে সন্নিবেশিত করে একটি অ্যালবাম বের করে এটিকে সংরক্ষণের উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। 

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এসময় বলেন, আমি মুক্তিযুদ্ধে যেতে পারিনি। কিন্তু আমাদের পূর্বসরি মুক্তিযোদ্ধারা, সাধারণ জনগণ এবং আমাদের সশস্ত্রবাহিনী নিজের জীবনকে হাতের মুঠোয় নিয়ে যুদ্ধ করেছে। একটি প্রশিক্ষিত সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জনগণের জনযুদ্ধে আমাদের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যদের ভূমিকা আমাদের স্বাধীনতাকে ত্বরান্বিত করেছে, হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবার সম্মিলিত রক্তস্রোতের বিনিময়ে আমাদের এই বাংলাদেশ রচিত হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরে আমরা গর্বিত জাতি। আমাদের এই অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আমরা এমন একটি রাষ্ট্র গঠন করতে চাই যে রাষ্ট্রে থাকবে মানবিকতা, সাম্য, অপরের প্রতি মমত্ববোধ, ২০৪১ সাল নাগাদ যে রাষ্ট্র জ্ঞানে-বিজ্ঞানে, শিক্ষায় একইসাথে মানবিকতায় উন্নত হবে যেন আমাদের কাছ থেকে পৃথিবী পথ দেখে। 

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, পিএসও লে. জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা চিত্রপ্রদর্শনী ঘুরে দেখেন। 
বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সকলের জন্য উন্মুক্ত রয়েছে। 

এসবি
 

আরও পড়ুন

আরও