বিজেপির রবি কিষেণকে কড়া আক্রমণ করলেন জয়া বচ্চন
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১০ আশ্বিন ১৪২৭

বিজেপির রবি কিষেণকে কড়া আক্রমণ করলেন জয়া বচ্চন

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:০৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

বিজেপির রবি কিষেণকে কড়া আক্রমণ করলেন জয়া বচ্চন
সোমবার লোকসভায় বিজেপি সংসদ সদস্য রবি কিষাণ বলিউডে মাদকাসক্তির প্রসঙ্গ তুলে খোঁচা দিয়েছিলেন। এর নেপথ্যে প্রতিবেশি দেশগুলোর ‘‌ষড়যন্ত্র’‌ও দেখেছিলেন। এই নিয়ে মঙ্গলবার রাজ্যসভায় তোপ দাগলেন আর এক সংসদ অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। কিষাণকে একহাত নিয়ে জয়া বললেন, ‘‌কয়েক জনের জন্য গোটা সিনেমার জগতের দিকে আঙুল তোলা ঠিক নয়। আমি সত্যিই বিব্রত এবং লজ্জিত যে, গতকাল লোকসভায় আমাদের এক সহকর্মী, যিনি আবার এই জগত থেকে এসেছেন, সেই সিনেমার জগতের বিরুদ্ধেই কথা বললেন। যে থালায় খান, সেখানেই ছিদ্র করেন।’

ভারতের জি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টির সংসদ জয়া বচ্চন এ নিয়ে তার মত প্রকাশ করেন। তিনি রবিকে ঠেস দিয়ে এ-ও বলেন, একদিন যারা এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করে নাম করেছেন তাদের কাছ থেকে এমন কথা আশা করা যায় না।

তেলঙ্গানার বিজেপির মুখ্য মুখপাত্র কে কৃষ্ণসাগর রাও জয়ার বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, জয়া বচ্চন তার এই বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে সংসদ হিসেবে যথেষ্ট দায়িত্ব জ্ঞানহীনতার পরিচয়ই দিয়েছেন। রাজ্য সভায় তার আজকের ভাষণ পুরোপুরি ভন্ডামিপূর্ণ। দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ওপর মাদকচক্রের কালো ছায়া ঘনিয়েছে। মাদকের কবলে পড়ে কমবয়েসি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের জীবন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অথচ এই বিষয়টা নিয়ে তিনি কিছু বললেনই না! ফিল্মি দুনিয়ার তরুণ শিল্পীদের মাদকাসক্তি বা মাদকনির্ভরতা নিয়ে তিনি একটা শব্দও উচ্চারণ করলেন না।

অথচ ন্যাশনাল ক্রাইম ব্যুরো প্রকাশিত এ সংক্রান্ত একটি তালিকা ইতিমধ্যেই প্রকাশিত হয়েছে এবং কেউ কেউ এখন গরাদের ওপারে।

তিনি আরো বলেন, জয়াজি বলিউডের সম্মানহানি করা হচ্ছে এই মর্মে রাজ্য সভায় নোটিশ দিলেন। তার কথাবার্তার ধরন-ধারণ খুবই অগভীর এবং লজ্জাজনক। আমি তাকে পরিষ্কার করে জিগ্যেস করতে চাই, তিনি কী বা কাকে আড়াল করতে এটা করছেন। বলিউডের অত্যতম সেরা একটি শিল্পী-পরিবারের প্রতিনিধি হিসেবে এই কি তার উচিত প্রতিক্রিয়া। দেখা যাচ্ছে নীতি নৈতিকতা মূল্যবোধ ইত্যাদি নিয়ে তার বা তাদের মতো প্রবীণ অভিনেত্রীদের বাহ্যিক উদ্বেগটা পুরোপুরি অন্তঃসারশূন্য এবং স্বার্থগন্ধী।

এসকে

 

আরও পড়ুন

আরও