ভোলায় সোয়া ৩ লাখ মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ভোলায় সোয়া ৩ লাখ মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

অচিন্ত্য মজুমদার, ভোলা ১২:৪২ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২০

ভোলায় সোয়া ৩ লাখ মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পানের’ কারণে ভোলায় আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে ৩ লাখ ১৬ হাজার মানুষ। জেলার ২১টি ঝুঁকিপূর্ণ দ্বীপ চর থেকে তাদের নিরাপদে আনা হয়েছে। এছাড়াও প্রবল জোয়ারে সাগর উপকূলের ঢালচর ও কুকরী মুকরি, চরপাতিলা প্লাবিত হয়েছে। পানি বন্দি হয়ে পড়েছেন অন্তত ৫ হাজার মানুষ।

এদিকে ১ লাখ ৩৬ হাজার গবাদি পশুকেও নিরাপদে আনা হয়েছে।

সকাল থেকে পুরো জেলায় ঝড়োবাতাস ও বৃষ্টিপাত হচ্ছে। জেলায় ৮ মিলিমিটার বৃস্টিপাত হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রতিটি আশ্রয় কেন্দ্রে গড়ে ২০০ জন করে রাখা হয়েছে। সেখানে আবস্থারতদের জন্য খাদ্য সামগ্রী দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু, প্রতিবন্দী, গর্ভবতী নারী ও বয়স্কদের জন্য আলাদা টিমের সদস্যরা সহযোগীতা করছে। ঝুঁকিপূর্ণ চরে বাসিন্দাদের আনার কাজ চলমান রয়েছে।

উপকূলীয় এলাকায় মাইকিং করছে সিপিপি ও রেডক্রিসেন্টের কর্মীরা। নিরাপদে চলে এসেছে মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার।

এদিকে, ঘূর্নিঝড় মোকাবেলায় কাজ করছে সিপিপির ১০ হাজার ২০০ সেচ্চাসেবী ও ৭৯টি মেডিকেল টিম। জেলা পুলিশ ও কোস্টগার্ড সদস্যরা জেলা প্রশাসনকে সহযোগীতা করছে।

এএম/জেডএস

 

: আরও পড়ুন

আরও