তাড়াশে রোপা আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষকেরা
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫ আশ্বিন ১৪২৮

তাড়াশে রোপা আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষকেরা

তাড়াশ(সিরাজগঞ্জ)প্রতিনিধি ৩:২৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০২১

তাড়াশে রোপা আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষকেরা
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে উচুঁ জমিগুলোতে রোপা আমন জাতের ধান লাগাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকেরা। এ বছর বন্যার পানি না আসায় ফসলি জমিতে রোপা আমন ধান রোপনে ঝুঁকছে কৃষক।
তাড়াশ উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর জানিয়েছে, উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নের তালম, দেশীগ্রাম, মাধাইনগর,  বারুহাস, তাড়াশ সদর, মাগুড়া বিনোদ, সগুনা ও নওগাঁ ইউনিয়নে চলতি মৌসুমে ব্রি-৩৪, ব্রি-৫৮, ব্রি-২৮,কাটারী ভোগ ও পাইজাম জাতের রোপা আমন ধান লাগিয়েছে কৃষক।

এ বছর ওই ৮টি ইউনিয়নে ১২ হাজার হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। ইতিমধ্যেই কৃষকেরা জমি তৈরি, বীজতলা থেকে চারা উত্তোলন এবং চারা রোপনের কাজ শুরু  করেছেন। 

উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের বিনসাড়া গ্রামের কৃষক বজলুর রহমান জানিয়েছেন, আবাহাওয়া অনুকুলে থাকায় এ বছর  ব্রি-৩৪, ব্রি-৫৮, ব্রি-২৮,কাটারী ভোগ ও পাইজাম জাতের রোপা আমন ধান চাষে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। 

তিনি আরো জানিয়েছেন, রোপা আমন ধানের উৎপাদন খরচও কম। ধানের ভালো দাম পাওয়ার আশা নিয়ে কৃষক রোপা ধান লাগাতে ঝুঁকে পড়েছেন। 

উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মাঠ ঘুরে দেখা যায়, বৃষ্টির পানিতে রোপা আমন ধান চাষ করার জন্য কৃষক জমি তৈরীর পর বীজ তলা থেকে চারা উত্তোলন করে রোপন করছেন। এ মৌসুমে বৃষ্টিপাতের পরিমান বেশি হওয়ায় পানি সেচের ততোটা ঝামেলা পোহাতে হয় না। এ জাতের ধান একর প্রতি ৫০-৬০ মন হয়ে থাকে। 

তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ  লুৎফুন্নাহার লুনা  জানিয়েছেন, বর্ষা মৌসুমে তাড়াশ উপজেলার উচুঁ এলাকায় বোরো ধান কাটার পর জমি গুলো অলস পড়ে থাকে। তাই কৃষকদের রোপা আমন ধান লাগাতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। এ বছর উপজেলায় এখনও পর্যন্ত ১২ হাজার হেক্টও জমিতে রোপন আমন লাগানো হয়েছে। 

এসকে
 

আরও পড়ুন

আরও