খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা: এবার ‘শর্তে’ রাজি বিএনপি
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১০ আশ্বিন ১৪২৮

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা: এবার ‘শর্তে’ রাজি বিএনপি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ২:০৫ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২১

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা: এবার ‘শর্তে’ রাজি বিএনপি
উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠাতে তার পরিবার যেকোনো কঠিন শর্ত মানতে রাজি। খালেদা জিয়া আর ‘রাজনীতিতে ফিরবেন না’- এমন শর্ত মেনে হলেও তাকে বিদেশে পাঠাতে আগ্রহী পরিবার।

এমন কঠোর শর্তে দল হিসেবে বিএনপির মনোভাব পরিষ্কার ছিল না। কিন্তু গতকালই দলের সায় মিলেছে।
 
দলটির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভায় রেজুলেশন পাস হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ তথ্য জানান।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা আগে বলিনি, উনার পরিবার বিদেশে পাঠানোর কথা বলেছিল। আমরা এবার পার্টির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে রেজুলেশন নিচ্ছি, তার বিদেশে চিকিৎসা দরকার। এজন্য যা কিছু করা দরকার সরকারের করা উচিত ইমিডিয়েটলি।

তারপরের যে স্টেপগুলো আছে, পরবর্তী সময় আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব।’ যদিও সরকারের ‘শর্তের বেড়াজালে’ আটকে আছে খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা। এতে বিএনপিপ্রধানের শারীরিক অবস্থা নিয়ে তার পরিবার এবং দলের মধ্যে উৎকণ্ঠা আরও বাড়ছে।

হাসপাতালে ভর্তির আগে-পরে বিদেশ চিকিৎসার দেওয়ার বিষয়ে পরিবার এবং দল থেকে দাবি জানানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে নিতে মে মাসের প্রথম সপ্তাহে সরকারের কাছে আবেদন করেন পরিবারের সদস্যরা।

আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত নিয়ে ৯ মে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আইন অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে সরকার অনুমতি দেবে না। এরপরও পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে চেষ্টা চলছে। এবার দল হিসেবে খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রার বিষয়ে শর্তের কথা বলল।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি স্থায়ী কমিটির সভা মনে করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে আরও উন্নত চিকিৎসা কেন্দ্রে পাঠানো দরকার। এজন্য দেশনেত্রীর বিদেশে যাওয়ার ব্যবস্থা ত্বরান্বিত করা এবং তার মুক্তি প্রদানে সরকারকে বিশেষভাবে আহ্বান জানানো হয়েছে স্থায়ী কমিটির সভায়।’

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশনেত্রী করোনাভাইরাসের সংক্রামণ থেকে মুক্ত হলেও কোভিড পরবর্তী কয়েকটি জটিলতায় ভুগছেন এবং তিনি কোনো মতেই ঝুঁকিমুক্ত নন। উনার লিভার ও অন্যান্য জটিলতার চিকিৎসা বিদেশে কোনো উন্নত কেন্দ্রে প্রয়োজন। বাংলাদেশে যে সুযোগ তুলনামূলকভাবে কম।’

গত ২০ জুন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ফুসফুসসহ নানা জটিলতায় আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্যের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে পর্যালোচনা হয় বলেও জানান বিএনপির মহাসচিব।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে টানা ৫৩ দিন চিকিৎসা শেষে গত শনিবার বাসায় ফেরেন খালেদা জিয়া। বাসায় ফিরলেও হার্ট, কিডনি ও লিভার সমস্যায় ভুগছেন তিনি। পুরনো অসুখ আর্থারাইটিসও রয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

এইচআর

আরো পড়ুন...
 

আরও পড়ুন

আরও