ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ মিশন সমাপ্তির ঘোষণা
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ২ কার্তিক ১৪২৮

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ মিশন সমাপ্তির ঘোষণা

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ মিশন সমাপ্তির ঘোষণা
অবশেষে ইরাকের বিরুদ্ধে 'সন্ত্রাসবিরোধী'
যুদ্ধ মিশনের সমাপ্তির ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। 

ফলে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য পাঠানোর ১৮ বছরের বেশি সময় পরে ওই যুদ্ধ মিশনের সমাপ্তি ঘটতে যাচ্ছে।

সোমবার হোয়াইট হাউসে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-খাদিমির সঙ্গে বৈঠকে বসেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। 

ওই বৈঠকের পরই ইরাকে যুদ্ধ মিশন সমাপ্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন বাইডেন।

দুই দেশের কৌশলগত আলোচনার অংশ হিসেবে হোয়াইট হাউসে এটাই তাদের প্রথম কোনো মুখোমুখি বৈঠক। 

বাইডেন বলেছেন, এ বছরের শেষের দিকে মার্কিন বাহিনী ইরাকে তাদের যুদ্ধ মিশন শেষ করবে। তবে তারা ইরাকি সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেওয়া অব্যাহত রাখবে।

বিবিসি বলছে, ইরাকে বর্তমানে আড়াই হাজার মার্কিন সেনা স্থানীয় বাহিনীকে ইসলামিক স্টেট (আইএস) গ্রুপের অবশিষ্টাংশের মোকাবিলায় সহায়তা করছে।

বৈঠকের আগে ওয়াশিংটনের কর্মকর্তারা জানান, বৈঠকে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের মিশন শেষ করতে একটি চুক্তি সম্পাদিত হবে। এর ফলে ১৮ বছর ধরে চলা সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধ শেষে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরবে তাদের সব সেনা।


বাইডেন প্রশাসনের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, সোমবারের বৈঠক শেষে যৌথ বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক মিশন সমাপ্তির ঘোষণা দেওয়া হবে। 

এর একদিন আগে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী খাদিমি বলেন, দেশে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের এখন আর কোনো প্রয়োজন নেই। তবে আইএসবিরোধী যুদ্ধ ও আমাদের সেনাদের প্রস্তুতির বিষয়ের জন্য একটি বিশেষ সময়সীমা প্রয়োজন।

গত এপ্রিলে ওয়াশিংটন ও বাগদাদের আলোচনায় ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এএফপি বলছে, ইরাক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহারের সম্ভাবনা নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা হয়েছে সোমবারের বৈঠকে।

এদিকে ইরাকে আইএসের বড় ধরনের বোমা হামলার এক সপ্তাহ পরই তাদের এ বৈঠক হয়েছে। যদিও বাগদাদ প্রায় তিন বছর আগেই ঘোষণা দিয়েছে, ইরাকে আইএস পরাজিত হয়েছে। তবে বাস্তবে দেশটিতে এখনও আইএস সক্রিয়।

ইরাকে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ২৫০০ সেনা সদস্য রয়েছে, যারা ইসলামিক স্টেটের অবশিষ্টাংশের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ভূমিকা রাখছে বলে খবরে বলা হয়েছে।

এইচআর

 

আরও পড়ুন

আরও