পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফায় ভোটগ্রহণ চলছে
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ১০ বৈশাখ ১৪২৮

পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফায় ভোটগ্রহণ চলছে

পরিবর্তন ডেস্ক ১:১৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৬, ২০২১

পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফায় ভোটগ্রহণ চলছে
পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফার নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে।ভোটকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা চরমে, নানা জায়গা থেকে গতকাল সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।
এটা ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) জন্য কঠিন পরীক্ষা। কারণ হাওড়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার যে ৩১টি আসনে ভোট হবে, তাতে ভালো ফল করাটা দলটির জন্য অত্যন্ত জরুরি। খবর আনন্দবাজারের

এসব আসনে বরাবরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসের দাপট। ২০১৯–এর লোকসভা নির্বাচনে এই ৩১ আসনের ২৯টিতে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনেও তৃণমূল পেয়েছিল ২৯টি আসন। 

এ অবস্থায় এ দফার ভোট বিজেপির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। এসব আসনে জিততে গেলে বিজেপির দক্ষিণপন্থী ও বামপন্থী দুই পক্ষেরই সাহায্য লাগবে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবারের নির্বাচনে সম্ভবত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জেলা। ২০১৯–এ লোকসভা নির্বাচনে এখানে তৃণমূল এগিয়ে ছিল। এই জেলায় তফসিলি জাতি ও উপজাতির ভোট তখন তৃণমূলের বাক্সে পড়েছিল, যা তারা অন্য অনেক জেলাতেই পায়নি। 

এখানে তফসিলি জাতি ও উপজাতির মিলিয়ে ২৫ শতাংশ ভোট রয়েছে। এই ভোটব্যাংকে বিজেপির দিকে টানতে গত কয়েক বছরে নানা কার্যক্রম চালিয়েছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস)।

দক্ষিণ ২৪ পরগনায় মুসলমান ভোট রয়েছে ৩৫ শতাংশ। আব্বাস সিদ্দিকীর দল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট, কংগ্রেস ও সিপিএম নিয়ে গঠিত সংযুক্ত মোর্চা যদি এখানে মুসলমান ভোট কিছুটা কাটতে পারে, তবে তাতে সমস্যা বাড়বে তৃণমূল কংগ্রেসের।

তবে তৃণমূলের সুবিধা হলো, এখানে অধিকাংশ আসনে তারা ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়েছিল ২০১৯–এর লোকসভা নির্বাচনে। 

বিজেপির থেকে অধিকাংশ আসনেই তৃণমূল ১৫ থেকে ২০ শতাংশ বেশি ভোটে এগিয়েছিল। এই ফারাক বিজেপির পক্ষে মেটানো খুব সহজসাধ্য নয়।

ওএস/এইচআর
 

আরও পড়ুন

আরও